জেরার সময় মুন্নার সঙ্গে থাকবেন আইনজীবী

Last Updated: Friday, March 15, 2013 - 12:17

জেরার সময় নিজের এক আইনজীবীকে সঙ্গে রাখার অনুমতি পেলেন মহম্মদ ইকবাল ওরফে মুন্না। বৃহস্পতিবার আলিপুর সিজেএম আদালতে সওয়াল জবাবে সেই অনুমতি আদায় করে নিয়েছেন মুন্নার আইনজীবীরা। তাদের যুক্তির সামনে আদালতে কার্যত আত্মসমর্পণ করেন নবনিযুক্ত সরকারি আইনজীবী শ্যামাদাস গাঙ্গুলি। প্রশ্ন উঠছে, তবে কি জেনেবুঝেই বদল করা হয়েছে সরকারি কৌঁসুলি?
মঙ্গলবার সরিয়ে দেওয়া হয় গার্ডেনরিচ কাণ্ডের সরকারি আইনজীবী নবকুমার ঘোষকে। দায়িত্বে আসেন শ্যামাদাস গাঙ্গুলি।তখনই প্রশ্ন উঠেছিল গার্ডেনরিচ মামলার ভবিষ্যত্‍ নিয়ে। বৃহস্পতিবার কার্যত সেটাই প্রমাণ হল। এসআই তাপস চৌধুরী খুনে অন্যতম অভিযুক্ত মহম্মদ ইকবাল ওরফে মুন্নার আইনজীবীরা আবেদনে জানান, সিআইডির জেরা চলাকালীন মুন্নার এক আইনজীবীকে থাকতে দেওয়া হোক। এই নিয়ে প্রায় এক ঘণ্টা ধরে সওয়াল জবাব চলে আলিপুর সিজেএম আদালতের এজলাসে। যার অধিকাংশ সময়টাই সরকার পক্ষের আইনজীবীকে প্রশ্নবাণে জর্জজিত করে ফেলেন মুন্নার আইনজীবীরা। তাঁদের যুক্তিজালের সামনে কার্যত দাঁড়াতেই পারেননি শ্যামাদাস গাঙ্গুলি। তেমন কোনও ধারই ছিল না তাঁর যুক্তিতে। স্বাভাবিকভাবেই চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুন্নার আইনজীবীদের পক্ষে রায় দেন। নির্দেশে তিনি বলেন, সিআইডির জেরা চলাকালীন সেখানে থাকতে পারবেন মুন্নার আইনজীবী।
রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ও সিপিআইএম নেতা সুশান্ত ঘোষ সিআইডি হেফাজতে থাকাকালীন একই ধরনের আবেদন জানিয়েছিলেন তাঁর আইনজীবীরা। কিন্তু সেসময় সরকারি আইনজীবীর অতি সক্রিয় ভূমিকায় এমন কোনও সুযোগ তাঁরা পাননি। প্রশ্ন উঠছে, আইনজীবীর উপস্থিতিতে মুন্নাকে জেরার সুযোগ দিতেই কি তড়িঘড়ি সরকারি আইনজীবী বদল? সরকারি আইনজীবীর আত্মসমর্পণে সেই অভিযোগই আরও জোরালো হয়েছে।
 



First Published: Friday, March 15, 2013 - 15:37


comments powered by Disqus