সোমবার থেকে দোকানে মিলছে এডিজির বই

Last Updated: Monday, September 3, 2012 - 17:51

সোমবার থেকে আবার ড: নজরুল ইসলামের লেখা বইয়ের বিক্রি শুরু করল প্রকাশনা সংস্থা। বইটির বিষয়বস্তুতে মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যের নয়া শাসকদলের কিছু বক্তব্য থাকায় গত বৃহস্পতিবার এই বইটিকে কার্যত নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। যদিও সরকারিভাবে কোনও নিষেধাজ্ঞা জারি না করায় আজ থেকে ওই বইটির বিক্রি শুরু করা হল। গত বৃহস্পতিবার প্রকাশনা সংস্থার কর্ণধার সবিতেন্দ্রনাথ রায়কে ফোন করে মুসলমানদের করণীয় শীর্ষক বইটির বিক্রি বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। সেই মতো গত ২দিন বইটির বিক্রি বন্ধ রাখা ছিল। সোমবার সংস্থার দোকান থেকে ফের বইটি বিক্রি শুরু হয়। সোমবার সকাল থেকেই দোকানের সামনে প্রচুর মানুষ ভিড় জমিয়েছিলেন।
`মুসলমানদের করণীয়` নামের বইটি প্রকাশিত হয় চলতি বছরের জুন মাসে। লেখক রাজ্য পুলিসের এডিজি ডঃ নজরুল ইসলাম। মিত্র ও ঘোষ সংস্থার তরফে এই বইটি প্রকাশ করা হয়েছিল। সংস্থার কর্ণধার সবিতেন্দ্রনাথ রায়ের অভিযোগ, বৃহস্পতিবার রাত ১১টা নাগাদ প্রকাশকের বাড়িতে এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ থেকে একটি ফোন আসে। তাঁর কাছে বইটির একটি কপি চাওয়া হয়। তিনি সেই মুহূর্তে দিতে না পারায় পরের দিন কলেজ স্ট্রিটে মিত্র ঘোষের দফতরে চড়াও হন এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের আধিকারিকরা। এমনকী, প্রকাশকের দফতর বই ছাপাখানা ও বাঁধাইয়ের দফতরে তল্লাসিও চালানো হয়। তল্লাসির জেরে দু`ঘণ্টা বন্ধ ছিল কলেজ স্ট্রিটের দোকান। তাঁকে বইটি বিক্রি না করার নির্দেশ দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ করেছেন সবিতেন্দ্র বাবু। তাঁকে পুলিসি হুমকির মুখে পড়তে হয়।
স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছে এই নিষেধাজ্ঞার কারণ নিয়ে। সাধারণত, ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত, ব্যক্তি বা সমাজ সম্পর্কে কুৎসা, জালিয়াতি, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিকে আঘাত করে এমন মন্তব্য থাকলে সেই বইকে নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয় প্রশাসন। নিন্তু এক্ষেত্রে এমন কোনও কারণ দর্শানো হয়নি। তবে কি শাসকদলের সমালোচনার জেরেই এই নির্দেশ? তবে তাঁর বই নিয়ে এই বিতর্কের ঘটনায় কোনও মন্তব্য করতে চাননি বর্তমানে এডিজি ট্রেনিং পদে কর্মরত আইপিএস অফিসার ডঃ নজরুল ইসলাম।
 



First Published: Monday, September 3, 2012 - 17:54


comments powered by Disqus