উপহার নিলে ডাক্তারদের আয়কর দিতে হবে

Last Updated: Wednesday, November 21, 2012 - 19:19

অর্থ বা দ্রব্য উপহার নিলে ডাক্তারদের এবার থেকে আয়কর দিতে হবে। বিজ্ঞপ্তি জারি করে এমনই নির্দেশ দিয়েছে আয়কর দফতর।  ওষুধের বিক্রি বাড়াতে বিভিন্ন সময়ে চিকিতসকদের নানা উপহার, বিদেশ ভ্রমণ ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি। এবার থেকে ওষুধ কোম্পানি এবং স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত কোনও সংস্থার থেকে পাওয়া যেকোনও উপহার,  ব্যবসায়িক আয় অথবা ভিন্নসূত্র থেকে আয় হিসেবে দেখাতে হবে চিকিত্সকদের।  
সরকারি হাসপাতাল হোক বা বেসরকারি হাসপাতাল, নার্সিংহোম। চিকিত্সকদের সঙ্গে ওষুধ এবং চিকিত্সা সরঞ্জাম প্রস্তুতকারি সংস্থাগুলির অশুভ আঁতাতের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। নিজেদের পণ্যের বিক্রি বাড়াতে ডাক্তারদের নানা উপহার, বিদেশ ভ্রমণ ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে সংস্থাগুলি।  পরিবর্তে সংশ্লিষ্ট সংস্থাটির ওষুধ প্রেসক্রাইব করে থাকেন চিকিত্সক। যার জেরে অনেক সময়ই একই মানের ওষুধ বেশি দাম দিয়ে কিনতে বাধ্য হন রোগীরা। মেডিক্যাল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ার আইন অনুযায়ী গোটা বিষয়টাই বেআইনি। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই নির্দিষ্ট তথ্য প্রমাণের অভাবে ধরাই যায় না অভিযুক্ত চিকিত্সককে। এই সব অসাধু চিকিত্সকদের বিরুদ্ধে এবার উদ্যোগী হল আয়কর দফতর। ওষুধ প্রস্তুতকারি এবং স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত সংস্থা গুলির  থেকে টাকা বা অন্য কোনও কিছু উপহার হিসেবে নিলে ডাক্তারদের এবার থেকে আয়কর দিতে হবে। যেকোনও উপহার ব্যবসায়িক আয় অথবা ভিন্নসূত্র থেকে আয় হিসেবে দেখাতে হবে তাঁদের।   ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে সার্কুলার জারি করেছে আয়কর বিভাগ।
 
কিন্তু কী ভাবে জানা যাবে কোন চিকিত্সক, কোথা থেকে, কী উপঢৌকন নিয়েছেন? আয়কর দফতরের কর্তারা বলছেন-
 
ওষুধ প্রস্তুতকারী এবং স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত সংস্থাগুলির বার্ষিক আয়-ব্যয়ের নথি পরীক্ষা করে দেখবেন আয়কর দফতরের কোম্পানি বিষয়ক শাখার কর্তারা। খতিয়ে দেখা হবে ব্যবসার বৃদ্ধি ও প্রচারের জন্য কোথায়, কত টাকা, কীভাবে খরচ করেছে সংস্থাগুলি। কোম্পানি বিষয়ক শাখার তথ্যের ভিত্তিতে অসাধু চিকিত্ সকদের চিহ্নিত করবে আয়কর দফতর। ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা এবং চিকিত্সকদের আঁতাঁতের বিভিন্ন অভিযোগ প্রায়ই জমা পড়ে মেডিক্যাল কাউন্সিলে। এরপরই অসাধু চিকিত্সকদের নিয়ে আয়কর দফতরের এই সিদ্ধান্ত।



First Published: Wednesday, November 21, 2012 - 19:19


comments powered by Disqus