বাসাভাড়া বাড়ানো নিয়ে সর্বদল বৈঠকে মিলল না রাস্তা

Last Updated: Friday, July 25, 2014 - 20:25
বাসাভাড়া বাড়ানো নিয়ে সর্বদল বৈঠকে মিলল না রাস্তা

কলকাতা: বাসভাড়া বাড়ানো নিয়ে বিধানসভায় সর্বদল বৈঠক থেকেও মিলল না কোনও সমাধানসূত্র। ভাড়া বাড়ানো হবে কিনা তা নিয়ে আজ সিদ্ধান্ত হয়নি। ভাড়াবৃদ্ধি নিয়ে সরকারের গড়া এক্সপার্ট কমিটি মৌখিকভাবে রিপোর্ট পেশ করে। আগামী সপ্তাহে তা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে লিখিত আকারে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। শেষ সিদ্ধান্ত তিনিই নেবেন।   

 বাস ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে অনড় বাস সংগঠনগুলি ইতিমধ্যে বেশ কয়েকবার ধর্মঘট করেছে। ভাড়া না বাড়ানো হলে তাঁদের হুঁশিয়ারি, লাগাতার আন্দোলন চলবে। এনিয়ে সিদ্ধান্তে পৌছতে শুক্রবার বিধানসভায় সর্বদল বৈঠক বসে। যদিও হাজির ছিলেন না বাম এবং কংগ্রেস বিধায়করা। ভাড়া বাড়ানো নিয়ে সরকারের গড়া এক্সপার্ট কমিটির সদস্যরাও যোগ দেন বৈঠকে। বাস ভাড়া বাড়ানোর দাবির পিছনে বাস মালিকদের যুক্তি, ডিজেলের দাম বেড়েছে, ইনশিওরেন্স বাবদ খরচ বেড়েছে,যন্ত্রাংশ সহ বাস রক্ষণাবেক্ষণের খরচও উর্ধ্বগামী।

এই প্রসঙ্গে এক্সপার্ট কমিটির বক্তব্য, প্রথম দুটি কারণ যুক্তিসঙ্গত হলেও তৃতীয়টি অমূলক। বাস মালিক সংগঠনের তরফে তা অনেকটাই বাড়িয়ে বলা হচ্ছে।  সবদিক বিবেচনা করে এক্সপার্ট কমিটি সুপারিশ করেছে, প্রতি কিলোমিটারে প্রত্যেক যাত্রীর ক্ষেত্রে বর্তমান ভাড়ার ওপর পচিশ শতাংশ ভাড়া বাড়ানো যেতে পারে।

বাস মালিক সংগঠনগুলির দাবি,  বেসরকারি বাসের ক্ষেত্রে নূন্যতম পাঁচ টাকার বদলে ভাড়া বাড়িয়ে আট টাকা করে দেওয়া হোক। মিনিবাসগুলির ক্ষেত্রে নূন্যতম ভাড়া ছ টাকার বদলে দশ টাকা করার দাবি তোলা হয়েছে।

সরকার এই সমস্ত দাবি কতটা মানবে তা নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা রয়েছে। সূত্রের খবর, বেসরকারি বাসে নূন্যতম ভাড়া সাত টাকা করার প্রস্তাব দিতে পারে এক্সপার্ট কমিটি। তবে শুধু বাস মালিকদের কথা নয়, যাত্রীস্বার্থের কথাও ভেবে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এদিন বৈঠক শেষে তিনি বলেন,  বাস মালিকদের দাবির পাশাপাশি যাত্রীদের দিকটিও অবশ্যই ভেবে দেখবে সরকার।

শেষপর্যন্ত কী হবে তা ঠিক করবেন খোদ মুখ্যমন্ত্রীই। আগামী সপ্তাহে শুক্রবার ফের সর্বদল বৈঠকে নিজেদের প্রস্তাব লিখিত আকারে জমা দেবে এক্সপার্ট কমিটি। এরপর তা সিল করে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।  

 



First Published: Friday, July 25, 2014 - 20:25


comments powered by Disqus