ময়দানে মোদীর জন্য তৈরি হচ্ছে না হেলিপ্যাড

রেসকোর্সে নরেন্দ্র মোদীর জন্য বিশেষ হেলিপ্যাড তৈরির অনুমতি দিল না সেনাবাহিনী। এই ঘটনায় কেন্দ্রীয় সরকারের হাত থাকার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছে না বিজেপি। রাজ্যের বিরুদ্ধেও মোদীর সভা ঘিরে অসহযোগিতার অভিযোগ উঠেছে। তবে কোনওভাবেই নরেন্দ্র মোদীর নিরাপত্তা নিয়ে আপস করা হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব।

Updated: Feb 4, 2014, 06:01 PM IST

রেসকোর্সে নরেন্দ্র মোদীর জন্য বিশেষ হেলিপ্যাড তৈরির অনুমতি দিল না সেনাবাহিনী। এই ঘটনায় কেন্দ্রীয় সরকারের হাত থাকার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছে না বিজেপি। রাজ্যের বিরুদ্ধেও মোদীর সভা ঘিরে অসহযোগিতার অভিযোগ উঠেছে। তবে কোনওভাবেই নরেন্দ্র মোদীর নিরাপত্তা নিয়ে আপস করা হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব।

বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদী কলকাতায় পা দেওয়ার আগেই তৈরি হল নতুন বিতর্ক। রাজ্য বিজেপির নেতারা ঠিক করেছিলেন, দমদম বিমানবন্দর থেকে হেলিকপ্টারে মোদীকে সোজা নিয়ে আসা হবে রেসকোর্সে। এবং সেখান থেকে গাড়িতে ব্রিগেড। কিন্তু বাধ সেধেছে সেনাবাহিনী।

এর পিছনে কেন্দ্রীয় সরকারের চক্রান্ত দেখতে পাচ্ছেন বিজেপি নেতারা। রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধেও একরাশ অভিযোগ রাহুল সিন্হার। জট না কাটলে শেষ পর্যন্ত হয়ত দমদম বিমানবন্দর থেকে সড়কপথেই ব্রিগেডে যেতে হবে নরেন্দ্র মোদীকে। তবে হেলিপ্যাড বিভ্রাটে সেনাবাহিনীর আপত্তি নাকি রাজ্যের পূর্ত দফতরের অসহযোগিতা তা নিয়ে তৈরি হয়েছে ধন্দ। মোদীর নিরাপত্তা নিয়ে কোনওরকম ফাঁক রাখতে নারাজ বিজেপি নেতৃত্ব। তিনদিন আগেই গুজরাট থেকে পৌছে গেছেন স্পেশ্যাল টাস্ক ফোর্সের আধিকারিকরা। ব্রিগেডের সভায় মোদীর নিরাপত্তার দায়িত্ব তাঁদের হাতে। এছাড়াও থাকছে এসপিজি। ব্রিগেডে বসানো হয়েছে ছটি ওয়াচ টাওয়ার। বিজেপির নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবক রা ওয়াকিটকি হাতে নজর রাখবেন মঞ্চের দিকে।

এর আগে বিহারে মোদীর সভার আগে বিস্ফোরণ হয়। প্রাণহানিও হয় বেশ কয়েকজনের। এরপর থেকে মোদীর যেকোন কর্মসূচিতেই নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা