পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে স্থগিতাদেশ দিল না সুপ্রিম কোর্ট

পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে অনিশ্চয়তা আরও বাড়ল। হাইকোর্টের রায়ের জন্য অপেক্ষা না করে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য নির্বাচন কমিশন। আজ দুপুর দুটোয় সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এ কে পট্টনায়েক এবং রঞ্জন গগৈয়ের অবকাশকালীন বেঞ্চে এই মামলার শুনানি হওয়ার কথা। তার আগে, সাড়ে বারোটায় হাইকোর্টে মামলার শুনানি রয়েছে।

Updated: Jun 26, 2013, 12:10 PM IST

পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে স্থগিতাদেশ দিল না সুপ্রিম কোর্ট। পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে অনিশ্চয়তা আরও বাড়ল। হাইকোর্টের রায়ের জন্য অপেক্ষা না করে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য নির্বাচন কমিশন। আজ দুপুর দুটোয় সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এ কে পট্টনায়েক এবং রঞ্জন গগৈয়ের অবকাশকালীন বেঞ্চে এই মামলার শুনানি হওয়ার কথা। তার আগে, সাড়ে বারোটায় হাইকোর্টে 
মামলার শুনানি রয়েছে।
তখনই, প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চকে সর্বোচ্চ আদালতে যাওয়ার কথা জানিয়ে দেবেন নির্বাচন কমিশনের আইনজীবী। আজ সকালে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের কাছে জেলাওয়াড়ি বাহিনীর তালিকা জমা দেন কমিশনের আইনজীবী। বাহিনীর ঘাটতি সামাল দিতে বিচারপতি জয়মাল্য বাগচি জেলাবিন্যাসে তিনটি পরিবর্তনের পরামর্শ দেন।
গতকাল, চার দফায় পঞ্চায়েত ভোটের প্রস্তাব দিয়েছিল রাজ্য সরকার। আজ বিচারপতি জয়মাল্য বাগচি বলেন, বর্ধমান ও উত্তর চব্বিশ পরগনাকে দ্বিতীয় দফার বদলে তৃতীয় দফায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হোক। তৃতীয় দফা থেকে মালদহকে নিয়ে যাওয়া হোক চতুর্থ দফায়। নির্বাচন কমিশন মনে করছে, হাইকোর্ট জেলাবিন্যাসের ওপর জোর দিচ্ছে। কিন্তু, ভোটে পর্যাপ্ত বাহিনীর বিষয়টি গুরুত্ব পাচ্ছে না। পর্যাপ্ত বাহিনী ছাড়া সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন সম্ভব নয় বলেই মনে করছে কমিশন। এই অবস্থায় হাইকোর্টে তাদের দাবির নিষ্পত্তির আশা না করে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কমিশন। সুপ্রিম কোর্টে আইনি পথেই কমিশনের মোকাবিলা করা হবে বলে মহাকরণ সূত্রে জানানো হয়েছে।