শিখার মামলার জেরে আদালতে হাজিরার নির্দেশ পার্থকে

দলের বিধায়কের করা মামলার জেরেই এবার আদালতে সরাসরি হাজির হতে হবে শিল্পমন্ত্রীকে। তৃণমূল কংগ্রেসেরই বিধায়ক শিখা মিত্র এই মামলা দায়ের করেছেন। আগামী ৯ এপ্রিল সশরীরে আদালতে হাজির হতে হবে শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে।

Updated: Jan 28, 2013, 08:05 PM IST

দলের বিধায়কের করা মামলার জেরেই এবার আদালতে সরাসরি হাজির হতে হবে শিল্পমন্ত্রীকে। তৃণমূল কংগ্রেসেরই বিধায়ক শিখা মিত্র এই মামলা দায়ের করেছেন। আগামী নয়ই এপ্রিল সশরীরে আদালতে হাজির হতে হবে শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে।
২০১২ সালের ১ জুলাই বিধানভবনে একটি অনুষ্ঠানে ভাষণ দিয়েছিলেন তৃণমূল বিধায়ক শিখা মিত্র। তার পরিপ্রেক্ষিতে পাল্টা প্রতিক্রিয়া জানান শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সেই প্রতিক্রিয়া প্রকাশিত হয় সংবাদমাধ্যমে। শিখা মিত্র দলবিরোধী কাজ করছেন এবং তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্য প্রকাশিত হয়।  তাতেই মানহানির অভিযোগ এনে দলের নেতা ও শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মামলা করেন শিখা মিত্র। আজ ব্যাঙ্কশাল কোর্টে বিচারক জয়প্রকাশ রায়ের এজলাসে ওই মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়।
মামলায় সাক্ষ্য দেন তৃণমূল বিধায়ক শিখা মিত্র। তাঁকে অসম্মান করার জন্য এবং হেয় প্রতিপন্ন করার জন্যই শিল্পমন্ত্রী ওই মন্তব্য করেছেন বলে অভিযোগ শিখা মিত্রের। এদিন সাক্ষ্য দেন অমিত কুমার ঘোষ নামে আরও এক ব্যক্তি। তিনিও শিল্পমন্ত্রীর মন্তব্য অবমাননাকর বলে অভিযোগ করেন। দুই সাক্ষীর বক্তব্যই লিপিবদ্ধ করেন বিচারক জয়প্রকাশ রায়।
 মামলাটি গ্রহণ করেন বিচারক। আগামী ৯ এপ্রিল আদালতে সশরীরে পার্থ চট্টোপাধ্যাকে হাজিরার নির্দেশ দেন বিচারক জয়প্রকাশ রায়। সেই সঙ্গে ওই সংবাদমাধ্যমের সম্পাদক এবং প্রকাশককেও আদালতে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ওইদিনই তাঁদের বক্তব্য শোনা হবে।