পিঙ্কি পুরুষ, বলছে রিপোর্ট

অ্যাথলিট পিঙ্কি প্রামাণিক বিতর্কে নয়া মোড়। মেডিক্যাল রিপোর্টে প্রমাণিত হল পিঙ্কি পুরুষ। তার ভিত্তিতেই আজ বারাসত আদালতে পিঙ্কির বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দিয়েছে পুলিস। চার্জশিটে পিঙ্কির বিরুদ্ধে ধর্ষণ, সম্পত্তি হাতানো সহ মোট ৫ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। শেষ শারীরিক পরীক্ষার রিপোর্টে বলা হয়েছে যে পিঙ্কি পুরুষ এবং সহবাসে সক্ষম। চার্জশিটের সঙ্গে এই মেডিক্যাল রিপোর্ট আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে।

Updated: Nov 12, 2012, 05:04 PM IST

অ্যাথলিট পিঙ্কি প্রামাণিক বিতর্কে নয়া মোড়। মেডিক্যাল রিপোর্টে প্রমাণিত হল পিঙ্কি পুরুষ। তার ভিত্তিতেই আজ বারাসত আদালতে পিঙ্কির বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দিয়েছে পুলিস। চার্জশিটে পিঙ্কির বিরুদ্ধে ধর্ষণ, সম্পত্তি হাতানো সহ মোট ৫ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। সেগুলি হল ৪১৭ (প্রতারণা), ৩২৫ (মারধর), ৪৯৩ (বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস), ৩৭৬ (ধর্ষণ) এবং ৫০৬ (হুমকি)। শেষ শারীরিক পরীক্ষার রিপোর্টে বলা হয়েছে যে পিঙ্কি পুরুষ এবং সে সহবাসে সক্ষম। চার্জশিটের সঙ্গে এই মেডিক্যাল রিপোর্ট আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে।
এশিয়াডে সোনা জয়ী 'মহিলা' অ্যাথলিট পিঙ্কি প্রামাণিকের বিরুদ্ধে চলতি বছরের জুনে ধর্ষণের অভিযোগ আনেন এক মহিলা। অভিযোগ ছিল, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে তাঁর সঙ্গে সহবাস করেছেন পিঙ্কি। পিঙ্কিকে পুরুষ বলে দাবি করে ওই মহিলা তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণেরও অভিযোগ এনেছিলেন। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয় পিঙ্কি প্রামাণিককে। আদালত তাঁকে ২৫ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ নেয়। লিঙ্গ নির্ধারণের জন্য তিন দফায় মেডিক্যাল পরীক্ষা হয় তাঁর। এসএসকেএম-এর শেষ শারীরিক পরীক্ষার সময় ৭ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ডও গঠিত হয়।
জেল হেফাজতে থাকার সময় তাঁকে পুলিসের কাছে বিভিন্ন ভাবে হেনস্থার শিকার হতে হচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠে। তাঁর সপক্ষে সোচ্চার হয় একাধিক মানবাধিকার সংগঠন। তৃতীয় দফার মেডিক্যাল পরীক্ষার পর তাঁকে জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়।
পরবর্তী শুনানির দিন পিঙ্কির হাতে চার্জশিটের কপি তুলে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। তবে, মেডিক্যাল রিপোর্টে পিঙ্কিকে পুরুষ  উল্লেখ করায় বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা থেকে তাঁর জেতা পদকগুলির কী হবে প্রশ্ন উঠছে তা নিয়ে।