চিটফান্ড কেলেঙ্কারি: কুণালের পর অঞ্জন ভট্টাচার্যকে নিয়ে অস্বস্তিতে রাজ্য

কুণাল ঘোষের পর অঞ্জন ভট্টাচার্য। সারদা কাণ্ডে শাসক দলের ঘনিষ্ঠ আরও একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠালেন তদন্তকারীরা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে অস্বস্তিতে রাজ্য সরকার।  

Updated: May 2, 2013, 09:20 AM IST

কুণাল ঘোষের পর অঞ্জন ভট্টাচার্য। সারদা কাণ্ডে শাসক দলের ঘনিষ্ঠ আরও একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠালেন তদন্তকারীরা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে অস্বস্তিতে রাজ্য সরকার।  
পালাবদলের পর একাধিক ঘটনায় বর্তমান শাসক দলের সঙ্গে নাম জড়িয়েছে, হিডকোর প্রাক্তন জনসংযোগ আধিকারিক অঞ্জন ভট্টাচার্যের। দুহাজার বারো সালের বিশে এপ্রিল পূর্ব মেদিনীপুরে, মুখ্যমন্ত্রীর ভাই পরিচয় দিয়ে প্রশাসনিক সুবিধা আদায় করতে গিয়ে ধরা পড়েন তিনি। সেই সময়েই তাঁর কাছ থেকে উদ্ধার হয় শাসক দলের ঘনিষ্ঠ একটি টেলিভিশন চ্যানেলের পরিচয়পত্র। দুহাজার বারোর তেইশে এপ্রিল সেই ঘটনার তদন্ত শুরু করে সিআইডি। সিআইডি তদন্তে উঠে আসে শাসক দলের ঘনিষ্ঠ একটি চিটফান্ড সংস্থার সঙ্গে অঞ্জন ভট্টাচার্যের ঘনিষ্ঠতার একাধিক তথ্য। এমনকি বর্তমান শাসকদলের কিছু নেতামন্ত্রীর নামও সেই তদন্তে উঠে এসেছিল বলে খবর। পরবর্তী ক্ষেত্রে সারদা গোষ্ঠী কেলেঙ্কারিতেও নাম জড়ায় অঞ্জন ভট্টাচার্যের।
বুধবার অঞ্জন ভট্টাচার্যকে বিধাননগর কমিশনারেটে ডেকে পাঠিয়ে দীর্ঘক্ষণ জেরা করা হয়। ঠিক কী জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল তাঁকে? প্রশ্নের উত্তরে অঞ্জন ভট্টাচার্য যা বলেছেন, তা অত্যন্ত তাত্পর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।
সরকারি কাজ বলতে ঠিক কী বলতে চেয়েছেন অঞ্জন ভট্টাচার্য? এর ফলে কী শাসক দলের সারদা যোগই স্পষ্ট হচ্ছে না? প্রশ্ন তুলছেন বিরোধীরা। কুণাল ঘোষের পর শাসক দলের ঘনিষ্ঠ আরও একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠানোয় সরকারের অস্বস্তি বাড়লো বলেই মনে করা হচ্ছে।