কড়া আইনের দাবি মমতার, সামাজিক আন্দোলনের ডাক অধীরের

দিল্লিতে নির্যাতিতা তরুণীর মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ধর্ষণ রুখতে কড়া আইনের দাবি জানিয়েছেন তিনি। ধর্ষণ বিরোধী আইন কার্যকর করার জন্য, সংসদে আলাদা করে বিশেষ অধিবেশন ডাকা যেতে পারে বলেও মন্তব্য করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। একই সঙ্গে ধর্ষণের ঘটনায় দোষীদের কঠোর শাস্তি এবং দ্রুত চার্জশিট দেওয়ার ওপর জোর দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

Updated: Dec 29, 2012, 06:19 PM IST

দিল্লিতে নির্যাতিতা তরুণীর মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ধর্ষণ রুখতে কড়া আইনের দাবি জানিয়েছেন তিনি। ধর্ষণ বিরোধী আইন কার্যকর করার জন্য, সংসদে আলাদা করে বিশেষ অধিবেশন ডাকা যেতে পারে বলেও মন্তব্য করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। একই সঙ্গে ধর্ষণের ঘটনায় দোষীদের কঠোর শাস্তি এবং দ্রুত চার্জশিট দেওয়ার ওপর জোর দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।
গণধর্ষণের জেরে নির্যাতিতা তরুণীর মৃত্যু দেশের পক্ষে লজ্জার। এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের উচিত ধর্ষণে অভিযুক্তদের জন্য কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা। না হলে এমন ঘটনা বন্ধ হবে না। নির্যাতিতা তরুণীর মৃত্যুর ঘটনায় এই প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু।
ধর্ষণের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার ডাক দিলেন অধীর চৌধুরী। কংগ্রেসের প্রকাশ্য সমাবেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, ধর্ষণ এক সামাজিক অপরাধ। "দিল্লি গণধর্ষণকাণ্ড সামাজিক অবক্ষয়ের ছবিটাই নতুন করে সামনে এনে দিয়েছে", আজ রানি রাসমণি অ্যাভিনিউয়ে কংগ্রেসের প্রকাশ্য সমাবেশে একথা বলেন কেন্দ্রীয় নগরোন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী দীপা দাশমুন্সি। এধরনের ঘটনার প্রতিবাদে সমাজের সবস্তরের মানুষের সোচ্চার হওয়া উচিত বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।
দিল্লিতে গণধর্ষণের নির্যাতিতা তরুণীর মৃত্যু দেশের বিবেককে জাগিয়ে দিয়ে গেল। এধরনের ঘটনা বন্ধ করতে রাজনৈতিক উদ্যোগের প্রয়োজন। প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সিপিআইএম নেতা শ্যামল চক্রবর্তী। কঠোর আইনের মাধ্যমে দেশের মহিলাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার জন্য কেন্দ্রকে অনুরোধ জানালেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্য। ধর্ষণের ঘটনার নিরিখে কংগ্রেসশাসিত মধ্যপ্রদেশ দেশের মধ্যে শীর্ষে বলে আজ প্রকাশ্য সমাবেশে স্বীকার করে নেন শাকিল আহমেদ। একইসঙ্গে তিনি বলেন, এনিয়ে রাজনীতি না করে সব জনপ্রতিনিধিদের উচিত ধর্ষণের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো।