অশালীনতার অভিযোগ প্রেসিডেন্সির অধ্যাপকের বিরুদ্ধে

সহকর্মীদের সঙ্গে অশালীন আচরণ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে মাদক নেওয়ার অপরাধে এবার কড়া শাস্তির মুখে পড়তে চলেছেন প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের এক অধ্যাপক। সদ্য নিয়োগপত্র পাওয়া ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশও করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালন কমিটি। 

Updated: May 17, 2013, 10:23 PM IST

সহকর্মীদের সঙ্গে অশালীন আচরণ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে মাদক নেওয়ার অপরাধে এবার কড়া শাস্তির মুখে পড়তে চলেছেন প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের এক অধ্যাপক। সদ্য নিয়োগপত্র পাওয়া ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশও করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালন কমিটি। 
কিছুদিন আগেই প্রেসিডেন্সির ইতিহাস বিভাগে অধ্যাপনায় যোগ দেন দীর্ঘদিন বিদেশে থাকা এক অধ্যাপক। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে জমা পড়ে তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ। প্রথম অভিযোগ, তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি ক্যান্টিনের সামনে ছাত্রদের সঙ্গে প্রকাশ্যে মাদক নিয়েছেন। এর কিছুদিন পরেই  এক সহকর্মী অধ্যাপিকা  দুর্ব্যবহারের অভিযোগ করেন ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে। ইতিহাস বিভাগের একাধিক অধ্যাপক, অধ্যাপিকা তাঁর বিরুদ্ধে অশালীন আচরণের লিখিত অভিযোগও করেন।
অভিযোগ পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ওই অধ্যাপককে সতর্ক করে দেন। কিন্তু তার পরেও সংযত হননি ওই অধ্যাপক । তাঁর বিভাগের মহিলা সহকর্মীরা তাঁদের নামে ফেসবুকে অশালীন কথা লেখার অভিযোগ তোলেন ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে। চলতি  মাসের  এগারো তারিখ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালন সমিতির বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়,সমিতি তার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিতে চায়।  এর মধ্যেই ফের  ইতিহাসের এক প্রবীন ও খ্যাতনামা অধ্যাপককে কটূক্তি করেন ওই অধ্যাপক। 
এই সপ্তাহের শেষেই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে পরিচালন সমিতি ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া যায় তার সুপারিশ করবে। তার ভিত্তিতেই প্রবেশন পিরিয়ডে থাকা ওই অধ্যাপককের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার কথাই ভাবছে কর্তৃপক্ষ।