কার্যত থমকে রয়েছে সারদা কাণ্ডের তদন্ত

কার্যত থমকে রয়েছে সারদা কাণ্ডের তদন্ত। আগামীদিনে তদন্ত ভার কোন সংস্থার হাতে যাবে সে বিষয় নিয়েই কার্যত দোলাচলে বিধান নগর পুলিস কমিশনারের কর্তারা। গত তিন দিনের মত আজও সম্ভবত বিধান নগর কমিশনারের গোয়েন্দা জেরার মুখে পড়তে হচ্ছে না সুদীপ্ত সেন ও দেবযানী মুখোপাধ্যায়কে। আজই দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার কাকদ্বীপ থানার পুলিসের জেরা করার কথা ছিল তাদের। কিন্তু সুদীপ্ত সেনের আইনজীবীর অনুপস্থিতিতে সেই জেরা আজ হচ্ছে না বলেই খবর।

Updated: May 15, 2013, 01:25 PM IST

কার্যত থমকে রয়েছে সারদা কাণ্ডের তদন্ত। ইতিমধ্যেই একাধিক কেন্দ্রীয় সংস্থা ঘটনার তদন্তে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। মঙ্গলবার কলকাতা হাইকোর্টে বিধাননগর পুলিসের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ এনেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। কেন্দ্রের কোম্পানি বিষয়ক মন্ত্রকের অধীন সংস্থা সিরিয়াস ফ্রড ইনভেস্টিগেশন অফিসও সারদাকাণ্ডের তদন্ত করতে চেয়ে আবেদন জানিয়েছে বিধাননগর আদালতে। সারদা চিটফাণ্ড কেলেঙ্কারিতে সিবিআই তদন্ত হবে কিনা, এই বিষয়টি এখনও কলকাতা হাইকোর্টের বিচারাধীন। আদালত এ বিষয়ে কী রায় দেয় সে দিকেই তাকিয়ে বিধাননগর পুলিস কমিশনারেটের  কর্তারা।
এ দিকে তিনদিন পর আজ ফের সুদীপ্ত সেন ও দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলেন বিধাননগরের পুলিস কমিশনার রাজীব কুমার। আজই দক্ষিণ ২৪ পরগনার কাকদ্বীপ থানার পুলিসের জেরা করার কথা ছিল ওই দু'জনকে। কিন্তু আইনজীবীরা অনুপস্থিত থাকায় আজ জেরা করা হয়নি সুদীপ্ত এবং দেবযানীকে।
সারদা-কাণ্ডের সিবিআই তদন্ত চেয়ে জনস্বার্থ মামলার শুনানি হবে হাইকোর্টের অন্য একটি ডিভিশন বেঞ্চে। গতকাল, প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে এই মামলার শুনানি হয়। কিন্তু, আজ প্রধান বিচারপতি নির্দেশ দেন মামলার  পরবর্তী শুনানি হবে বিচারপতি অসীম বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিচারপতি মৃণালকান্তি চৌধুরীর ডিভিশন বেঞ্চে। নতুন ডিভিশন বেঞ্চে আগামিকাল এই মামলার শুনানি হবে কিনা তা নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে। কাল শুনানি না হলে পরবর্তী শুনানি হবে গরমের ছুটির পর। নতুন দুই বিচারপতি মামলাটি আবার শুরু থেকে শুনবেন। ফলে, রায় ঘোষণার ক্ষেত্রে দেরি হবে বলে মনে করছে আইনজ্ঞ মহল।