শিখা মিত্র, ফায়দা তুলতে উদ্যোগী কংগ্রেস

Last Updated: Wednesday, December 12, 2012 - 16:18

শিখা মিত্রের সাসপেনশন নিয়ে দিনভর গুঞ্জন বিধানসভায়। সরব কংগ্রেস, আলোড়ন তৃণমূল শিবিরেও। শোকজ ছাড়াই কেন শিখা মিত্রকে সাসপেন্ড করা হল তানিয়ে ঘনিষ্ঠমহলে প্রশ্ন তুলেছেন তৃণমূল কংগ্রসের একাধিক বিধায়ক।
তাঁদের বক্তব্য শিখা মিত্রকে সাপসেন্ড করা হলে কবীর সুমন, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় এখনও দলে রয়েছেন কেন। তাত্পর্যপূর্ণভাবে গোটা ইস্যুতে সরব কংগ্রেস। শিখা মিত্রর সাসপেনশনকে  তৃণমূলের অভ্যন্তরের বিষয় বললেও, এটা যে দলের গোষ্ঠীকোন্দলের প্রমাণ ঠারেঠোরে তাও বোঝাচ্ছেন কংগ্রেস নেতারা। এক কদম এগিয়ে কংগ্রেস নেতা মনোজ চক্রবর্তীর দাবি, এই ঘটনা আসলে তৃণমূলের শেষের শুরু। শিখা মিত্রের সাসপেনশনের কড়া সমালোচনা করেছেন, কংগ্রেস বিধায়ক মানস ভুঁইঞাও।
গতকালই দলবিরোধী কাজের অভিযোগে শিখা মিত্রকে সাসপেন্ড করে তৃণমূল কংগ্রেস। অনিদির্ষ্টকালের জন্য তাঁকে সসপেন্ড করা হয়। বিধানসভায় 'ন্যক্কারজনক' ঘটনার সমালোচন করায় তিনি কোপের মুখে পরেন বলে মনে করছে রাওজনোইতিক মহল। "সভায় ঢুকতে ভয় পাচ্ছি।" গতকালের বিধানসভায় হইহট্টগোল ও তা থেকে হাতাহাতি। এই নজিরবিহীন ঘটনায় এমনই মন্তব্য করেন তৃণমূল বিধায়ক শিখা মিত্র। বিধানসভায় গণ্ডগোলের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, "এই ঘটনা ন্যক্কারজনক।" এরপর বিধায়কদের সম্পর্কে মানুষ কী ভাববেন, এনিয়েও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন শিখা মিত্র।



First Published: Thursday, December 13, 2012 - 14:04


comments powered by Disqus