তৃণমূলকে ধ্বংস করতে রেল বাজেট, দাবি সৌগতের

তৃণমূলকে ধ্বংস করতেই এই রেল বাজেট। বাংলার প্রতি বঞ্চনার সংখ্যাতত্ত্ব তুলে অভিযোগ করল তৃণমূল কংগ্রেস। রেল প্রতিমন্ত্রী অধীর চৌধুরী অবশ্য এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। পবন বনসলের রেল বাজেটকে সামনে রেখে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়েছে সিপিআইএম। দলের নেতা মহম্মদ সেলিমের মন্তব্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষিত রেল প্রকল্পগুলির যে কোনও বাস্তব ভিত্তি ছিল না, এ বারের বাজেটে তাই প্রকাশ্যে চলে এসেছে। 

Updated: Feb 26, 2013, 09:54 PM IST

তৃণমূলকে ধ্বংস করতেই এই রেল বাজেট। বাংলার প্রতি বঞ্চনার সংখ্যাতত্ত্ব তুলে অভিযোগ করল তৃণমূল কংগ্রেস। রেল প্রতিমন্ত্রী অধীর চৌধুরী অবশ্য এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। পবন বনসলের রেল বাজেটকে সামনে রেখে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়েছে সিপিআইএম। দলের নেতা মহম্মদ সেলিমের মন্তব্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষিত রেল প্রকল্পগুলির যে কোনও বাস্তব ভিত্তি ছিল না, এ বারের বাজেটে তাই প্রকাশ্যে চলে এসেছে। 
তৃণমূল নেতা সৌগত রায়ের অভিযোগ, নোয়াপাড়া-বিমানবন্দর-বারাসত মেট্রো প্রকল্পের জন্য ২,৩০০ কোটি টাকা খরচ ধরা হলেও বরাদ্দ হয়েছে মাত্র ১৭০ কোটি টাকা। বিমানবন্দর-নিউ গড়িয়া প্রকল্পের জন্য ৩৯০০ কোটি টাকা খরচ ধরা হলেও মাত্র ২৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। দমদম-বারাকপুর-দক্ষিণেশ্বর মেট্রো প্রকল্পে ২০০০ কোটি টাকা খরচ ধরা হলেও এ বারের রেল বাজেটে মাত্র ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন সৌগত রায়। জোকা-বিবাদি মেট্রোয় ২৬০০ কোটি টাকা খরচের জায়গায় ৪৫ কোটি টাকা এবং ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পে ৪৮০০ কোটি টাকার বদলে মাত্র ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বলে তৃণমূলের অভিযোগ।
এ বার রেল বাজেট পেশের পর, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষিত নানা অবাস্তব প্রকল্পের বেড়াল ঝুলি থেকে বেড়িয়ে পড়েছে। অভিযোগ, সিপিআইএম নেতা মহম্মদ সেলিমের।
রেলের আর্থিক সঙ্কটের কথা স্বীকার করায় পবন বনসলকে সাধুবাদ জানিয়েছে সিপিআইএম। তবে, ঘুরপথে রেলের ভাড়া বৃদ্ধি ও পণ্যমাশুল বাড়ানোর জন্য কংগ্রেসের সমালোচনা করা হয়েছে সিপিআইএমের পক্ষ থেকে।