সুনীল আবেগে ভেসে কেঁদে ফেললেন সৌমিত্র

কে বলে তিনি নেই। উত্সবের আলো ফিকে করে এই তো সেদিন চলে গেলেন তিনি। তবু তাঁর ছায়া যেন ক্রমেই দীর্ঘ হচ্ছে বাঙালির মননে। তাঁর লেখনীর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে আমবাঙালির আশৈশব স্মৃতি। আর যাঁরা কাছের, তাঁদের স্মৃতিতে স্বজন হারানোর বেদনা। তাঁরই গড়া বুধসন্ধ্যার আসরে তাঁর কথা বলতে গিয়ে চোখের জল বাঁধ মানলো না সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের। পরিপূর্ণ দর্শক আসনেও কোথাও তিনি নেই।

Updated: Nov 7, 2012, 10:16 PM IST

কে বলে তিনি নেই। উত্সবের আলো ফিকে করে এই তো সেদিন চলে গেলেন তিনি। তবু তাঁর ছায়া যেন ক্রমেই দীর্ঘ হচ্ছে বাঙালির মননে। তাঁর লেখনীর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে আমবাঙালির আশৈশব স্মৃতি। আর যাঁরা কাছের, তাঁদের স্মৃতিতে স্বজন হারানোর বেদনা। তাঁরই গড়া বুধসন্ধ্যার আসরে তাঁর কথা বলতে গিয়ে চোখের জল বাঁধ মানলো না সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের। পরিপূর্ণ দর্শক আসনেও কোথাও তিনি নেই। তবু গোটা সন্ধ্যাজুড়ে তিনিই তো ছড়িয়ে রইলেন মানুষের ভালোবাসায়।  
কবিতার জন্য অমরত্ব তাচ্ছিল্য করেছিলেন তিনি। সেই কবিতাই তাঁকে অমর করে রাখল বাঙালী মননে। আমার ভালবাসার কোনও জন্ম হয়না মৃত্যু হয়না। গভীর বিশ্বাসের কথা এভাবেই বলতেন সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়। এই তো সেদিন উত্সবের আলো ফিকে করে চলে গেলেন তিনি। কিন্তু নিজের বিশ্বাসের মতোই তিনি রয়ে গিয়েছেন মানুষের ভালবাসায়। রোটারি সদনে বুধসন্ধ্যা আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রিয় কবিকে স্মরণ করলেন তার বন্ধুরা। বহুদিনের পুরনো বন্ধুকে স্মরণ করলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। উপস্থিত ছিলেন নবনীতা দেবসেন। কবি পত্নী স্বতী গঙ্গোপাধ্যায় সহ সুনীল অনুরাগীরা।