কেমন চলছে ধর্মঘট--দেখুন টাইমলাইন

Last Updated: Wednesday, February 20, 2013 - 14:11

মূল্যবৃদ্ধি, খুচরো ব্যবসায় বিদেশি বিনিয়োগ সহ কেন্দ্রের বিভিন্ন আর্থিক এবং শ্রমনীতির প্রতিবাদে আজ ট্রেড ইউনিয়নগুলির ডাকে দুদিনের সাধারণ ধর্মঘট শুরু হয়েছে। দেশজুড়ে মোট ১১টি কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়ন এই ধর্মঘটে অংশ নিচ্ছে। সেই ধর্মঘট সারা দেশ-রাজ্য- জেলায় কী ঘটছে এই নিয়েই থাকল আমাদের বিশেষ টাইমলাইন--

দুপুর ২টা-- "যে সব দল বনধ ডাকে তাদের নিষিদ্ধ করা উচিত"

 মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্যের পর শুরু হল বিতর্ক
কারণ জন্মলগ্নের পর থেকে এতবার বন‌্‌ধ ডেকেছে তৃণমূল কংগ্রেস, যে তাঁর দল তাহলে এতদিনে 'ব্ল্যাকলিস্টেড' হয়ে যাওয়া উচিত এমনটাই বলছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা
মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, সরকারি অফিসে সবাই অফিসে এসেছেন। সঙ্গে বললেন, যারা ধর্মঘটে কাজে যোগ দিয়েছেন তাদের জন্য পুরস্কার ব্যবস্থা থাকবে।
দুপুর ১.৩০টা-- মহাকরণে সাংবাদিক সম্মেলন শুরু মুখ্যমন্ত্রীর। অপ্রিয় প্রশ্ন শুনে সাংবাদিকদের ধমক মমতার।
দুপুর ১.২৫টা-- ধর্মঘট ঘিরে রণক্ষেত্র নয়ডা। ধর্মঘটের দিন কারখানা খোলা রাখার প্রতিবাদে নয়ডা ফেজ টুতে বিক্ষোভ শুরু হয়।খোলা কারখানা লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টির সঙ্গে চলে অবাধে ভাঙচুর। পড়ুন বিস্তারিত
দুপুর ১২.৩০-- ধর্মঘটে শহরের পরিস্থিতি ঘুরে দেখতে রাস্তায় নামলেন মুখ্যমন্ত্রী। এর আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মহাকরণ ঘুরে দেখেন। কিছুক্ষণ বাদেই তিনি সাংবাদিক সাংবাদিক সম্মেলন করবেন। দেখুন ভিডিও
দুপুর ১২টা-- শহরে মেট্রো চলাচল স্বাভাবিক। তবে যাত্রী বেশ চোখে পড়ার মত কম।
সাড়ে ৫ হাজার মিনি বাসের মধ্যে চলছে ১৫০টি মিনিবাস। তেত্রিশ হাজার ট্যাক্সির মধ্যে মাত্র তিনশোটি ট্যাক্সি চলছে।
সকাল ১১.৩০টা-- শাসকদলের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ পশ্চিম মেদিনীপুরে
শাসকদলের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ উঠেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের নারায়ণগড়ে। অভিযোগ, সিপিআইএমের নারায়ণগড় লোকাল কমিটির কার্যালয়ে ভাঙচুর চালায় তৃণমূল কংগ্রেস। দাঁতনেও সিপিআইএমের স্থানীয় কার্যালয়ে ঢুকে কয়েকজন মহিলাকর্মীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে।  
সকাল ১১টা-- উত্তপ্ত হাজরা, মদনের ফাজলামি উক্তি
রাসবিহারি মোড় থেকে ধর্মঘটীদের একটি মিছিল যাচ্ছিল ভবানীপুরে। মিছিল যখন হাজরা মোড়ে, সেসময় সেখান দিয়ে যাচ্ছিলেন পরিবহণমন্ত্রী মদন মিত্র। তিনি হাজরা মোড়ে উপস্থিত পুলিসকর্মীদের মিছিল সরিয়ে দিতে নির্দেশ দেন। ধর্মঘটীদের সঙ্গে তাঁর বচসাও হয়। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। মদন বলেন, "ফাজলামি হচ্ছে"। দেখুন ভিডিও

সকাল ১০.৩০টা--আসানসোলে দফায় দফায় সিপিআইএম এবং তৃণমূল কংগ্রেসের মধ্যে উত্তেজনা ছড়ায়। উত্তপ্ত হয়ে ওঠে আসানসোল বাজার এবং বিএনআর মোড়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে পৌঁছয়  বিশাল পুলিসবাহিনী এবং র‌্যাফ। এর জেরে সকাল থেকে যে কটি সরকারি-বেসরকারি বাস পথে নেমেছিল, তাও বন্ধ হয়ে যায়।
সকাল ১০টা--
বিক্ষোভ, অবরোধের জেরে ট্রেন চলাচল ব্যাহত। শিয়ালদহ, হাওড়া স্টেশনে নেই সেই ব্যস্ততার চেনা ছবি।
সকাল ৯টা-- মহানগরের রাস্তায় দেখা মিলছে বাস, ট্রাম, ট্যাক্সির। তবে যাত্রী বেশ কম।
কলকাতায় অন্যান্য দিন প্রায় ৮ হাজার বাস চলে। আজ চলছে মাত্র একশোটি বাস।

সকাল ৮টা-- পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথিতে ধর্মঘটীদের মারধরের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে।
সকাল ৭.৩০টা-- ধর্মঘটের প্রথম বেলাতেই খুন শ্রমিক নেতা। হরিয়ানার আম্বালায় এআইটিইউসির ট্রেজারার নরেন্দ্র সিং-এর উপর দিয়ে বাস চালিয়ে দেওয়া হয়। ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়।
সকাল ৬টা-- ট্রেড ইউনিয়নগুলির ডাকা সাধারণ ধর্মঘট শুরু। রাস্তায় পুলিসের কড়া প্রহরা।
সকাল ৭টা-- সকালবেলা শহর কলকাতার ব্যস্ততার চেনা ছবিটা উধাও।



First Published: Wednesday, February 20, 2013 - 15:04


comments powered by Disqus