নির্বাচন নির্ঘণ্ট ঘোষণা রাজ্যের, বিতর্ক সব মহলে

Last Updated: Saturday, March 23, 2013 - 10:04

নির্বাচন কমিশনের সমস্ত প্রস্তাব নাকচ করে দিয়ে শুক্রবার একতরফাভাবে পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন ঘোষণা করল রাজ্য সরকার। পঞ্চায়েত নির্বাচনকে ঘিরে সরকারের এই অনড় মনোভাবের জেরে ইতিমধ্যেই তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক বিতর্ক। সরকারের এই সিদ্ধান্ত অসাংবিধানিক বলেই মনে করেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি ভগবতী প্রসাদ ব্যানার্জি।  তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে রাজনৈতিক বিরোধীরাও।
রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দাবি ছিল, অবাধ এবং সুস্থ নির্বাচনের জন্য কেন্দ্রীয় বাহিনীর পাহারায় তিন দফায় হোক পঞ্চায়েত নির্বাচন। তবে নির্বাচনের কমিশনের সবকটি প্রস্তাবই নাকচ করে দিল রাজ্য সরকার। 
এর পরেই রাজ্যজুড়ে শুরু হয় প্রতিক্রিয়ার ঝড়।   সংবিধানের ২৪৩ কে ধারা অনুযায়ী পঞ্চায়েত নির্বাচনের বিষয়ে  সর্বোচ্চ ক্ষমতা নির্বাচন কমিশনরই। রাজ্য সরকার একতরফাভাবে নির্বাচনের দিন ঘোষণা করে সংবিধানের সেই ধারাকেই খর্ব করছে। এমনটাই মত হাইকোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি ভগবতী প্রসাদ ব্যানার্জির। 
রাজ্য সরকারের একতরফা সিদ্ধান্তের জেরে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক বিতর্কও। কংগ্রেস নেতা আবদুল মান্নানের অভিযোগ, পঞ্চায়েত ভোটকে প্রহসনে পরিণত করতে চাইছে রাজ্য সরকার। তাঁর দাবি, সরকারের এই চক্রান্ত মোকাবিলায়  প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে কংগ্রেস।
রাজ্য সরকারের এই অনড় মনোভাবের প্রেক্ষিতে অবশ্য এখনই কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে রাজি হননি বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু। তিনি বলেছেন,  পঞ্চায়েত ভোটের দিন ঘোষণা হয়েছে দেখলাম। নির্বাচন পরিচালনার সাংবিধানিক দায়িত্ব যাঁদের তাঁরা কী বলেন তা দেখে প্রতিক্রিয়া জানাব। 
রাজ্য সরকার যেভাবে পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিনঘোষণা করেছে তা অবৈধ। এমনটাই মত বিজেপির রাজ্য সভাপতির রাহুল সিনহার। সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার ইঙ্গিতও দিয়েছেন তিনি।
রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তে বিতর্কের ঝড় বিভিন্ন মহলেও।  গার্ডেনরিচকাণ্ডের জেরে ছমাসের জন্য সব কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রসংসদ নির্বাচন বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে  সরকার। এই অবস্থায় কেন্দ্রীয় বাহিনী ছাড়াই দু`দফায় এতোবড় পঞ্চায়েত ভোট সুষ্ঠুভাবে আদৌ করানো সম্ভব কিনা তা নিয়ে  তৈরি হয়েছে বিতর্ক।
অন্যদিকে,  পঞ্চায়েত ভোটে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের সমস্ত প্রস্তাব নাকচ করে দেওয়ার ঘটনাও আগে কখনও ঘটেনি। তাই প্রশ্নের মুখে  রাজ্য সরকারের এই নজিরবিহীন আচরণও।



First Published: Saturday, March 23, 2013 - 10:04


comments powered by Disqus