সুদীপ্ত সেনের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা

সারদা-কাণ্ডে সিবিআই তদন্তের দাবিতে হাইকোর্টে দায়ের হল আরও একটি জনস্বার্থ মামলা। প্রধান বিচারপতি অরুণ মিশ্র ও বিচারপতি জয়মাল্য বাগচির ডিভিশন বেঞ্চে প্রদেশ কংগ্রেসের আইনজীবী সেলের তরফে আজ জনস্বার্থ মামলাটি দায়ের করা হয়। আবেদনকারী নরেন্দ্র প্রসাদ গুপ্তার আবেদনের ভিত্তিতে ২মে এই মামলার শুনানি হবে।

Updated: Apr 30, 2013, 10:24 AM IST

সারদা-কাণ্ডে সিবিআই তদন্তের দাবিতে হাইকোর্টে দায়ের হল আরও একটি জনস্বার্থ মামলা। প্রধান বিচারপতি অরুণ মিশ্র ও বিচারপতি জয়মাল্য বাগচির ডিভিশন বেঞ্চে প্রদেশ কংগ্রেসের আইনজীবী সেলের তরফে আজ জনস্বার্থ মামলাটি দায়ের করা হয়। আবেদনকারী নরেন্দ্র প্রসাদ গুপ্তার আবেদনের ভিত্তিতে ২মে এই মামলার শুনানি হবে।
সারদা গোষ্ঠীর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে অবিলম্বে আমানতকারীদের অন্তত ২৫ শতাংশ অর্থ ফেরত ও সংস্থার যাবতীয় স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির রক্ষণাবেক্ষণের জন্য হাইকোর্টের কাছে রিসিভার নিয়োগের দাবি জানিয়েছে প্রদেশ কংগ্রেসের আইনজীবী সেল। সারদা-কাণ্ডে তৃণমূল সাংসদ কুণাল ঘোষের ভূমিকা খতিয়ে দেখার জন্যও আদালতের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে। গোটা ঘটনার সিবিআই তদন্ত চেয়ে বাসবী রায়চৌধুরী নামে এক আইনজীবী এর আগে একই ডিভিশন বেঞ্চে মামলা দায়ের করেছিলেন।
আজ সকালে ফের সারদা গোষ্ঠীর কর্ণধার সুদীপ্ত সেনকে জেরা শুরু করলেন আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিস কমিশনারেটের গোয়েন্দারা। সারদা গোষ্ঠীর ডিরেক্টর দেবযানী মুখোপাধ্যায়কেও জেরা করা হবে বলে জানা গেছে।
আসানসোলে সুদীপ্ত সেনের বিরুদ্ধে জমা পড়া অভিযোগের তদন্ত করতে গতকালই আসানসোল পুলিসের তিন সদস্যের একটি দল কলকাতায় আসে। রাতে ইলেক্ট্রনিক কমপ্লেক্স থানায় মনোজ নাগেল ও অরবিন্দ সিং চৌহানকে জেরা করা হয়। এরপর নিউটাউন থানায় জেরা শুরু হয় সুদীপ্ত সেনকে। তবে আইনজীবীর আপত্তি থাকায় রাতে জেরা করা সম্ভব হয়নি দেবযানীকে।