রুগ্ন পরিবহণ সংস্থা বাঁচাতে রাস্তায় কর্মীরা

Last Updated: Tuesday, December 11, 2012 - 21:21

পরিবহণ সংস্থাকে বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার চক্রান্ত চলছে। এমনই অভিযোগ করলেন বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র। এই চক্রান্ত রুখতে প্রয়োজনে সরকারি কর্মীরা আন্দোলনে যাবেন বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি। পরিবহণ নিয়ে সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে মঙ্গলবার নোনাপুকুর ট্রামডিপো থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত মিছিল করেন পরিবহণ কর্মীরা।
রাজ্যে ক্ষমতার পালাবদলের পর থেকে রাষ্ট্রায়ত্ত পরিবহণ সংস্থার কর্মীদের উপর একের পর এক আঘাত নেমে আসছে। অভিযোগ বামপন্থী শ্রমিক সংগঠনগুলির। পাঁচটি রাষ্ট্রায়ত্ত পরিবহণ সংস্থার ৩৬ হাজার কর্মী  বেতন ও পেনশন অনিশ্চিত এবং অনিয়মিত। সময়মতো বেতন বা পেনশন না পেয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন তিন পরিবহণ কর্মী। আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন আরও ১২ জন। রুগ্ন রাষ্ট্রায়ত্ত পরিবহণ নিগমগুলিকে আর্থিক প্যাকেজ দিয়ে চাঙ্গা করার পরিবর্তে  বেঁচে দেওয়ার চক্রান্ত চলছে নিগমের হাতে থাকা জমি। ৫০ থেকে ৫৯ বছরের পরিবহণ কর্মীদের বাধ্যতামূলক স্বেচ্ছাঅবসরের জন্য জারি হয়েছে গেজেট নোটিফিকেশন। ধাপে ধাপে সরকারি পরিবহণকে বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার চক্রান্ত চলছে। অভিযোগ বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্রের।
 
সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে নোনাপুকুর ট্রামডিপো থেকে বুধবার বেলা দু`টোয় ধর্মতলা পর্যন্ত মিছিল করেন পরিবহণ কর্মীরা। ধর্মতলা ইস্টে তাঁরা অবস্থান বিক্ষোভও করেন। পরিবহণকে বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার চক্রান্ত হলে, সরকারি কর্মীরা পরিবহণের চাকা স্তব্ধ করে দেবেন বলেও হুমকি দেন সূর্যকান্ত মিশ্র।
 
সুব্রত বক্সী থেকে মদন মিত্র, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে রাষ্ট্রায়ত্ত পরিবহণ নিয়ে একের পর এক ক্ষতিকর পরীক্ষা নিরীক্ষা চলেছে বলে শ্রমিক সংগঠনগুলির অভিযোগ। পরিবহণ দফতরের বিশেষ উপদেষ্টা হিসেবে প্রাক্তন রেলমন্ত্রী মুকুল রায়ের নিয়োগের মধ্যেও চক্রান্ত দেখছেন তারা। এর প্রতিবাদে আগামীদিনে আরও বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন তারা।



First Published: Tuesday, December 11, 2012 - 21:21


comments powered by Disqus