`সাংবিধানিক অধিকারে হস্তক্ষেপ`, বিরোধিতায় সরব সূর্য

ধর্মঘটের বিরোধিতায় রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করলেন বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র। আজ সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, ধর্মঘট শ্রমিকদের সাংবিধানিক অধিকার। এভাবে ধর্মঘটের বিরোধিতা করা সংবিধান বিরোধী।

Updated: Feb 19, 2013, 07:51 PM IST

ধর্মঘটের বিরোধিতায় রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করলেন বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র। আজ সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, ধর্মঘট শ্রমিকদের সাংবিধানিক  অধিকার। এভাবে ধর্মঘটের বিরোধিতা করা সংবিধান বিরোধী।
একই সঙ্গে যে সরকার কলেজ নির্বাচনই করতে পারছে না তারা একদিনে পঞ্চায়েত নির্বাচন করবে কী করে, বলে প্রশ্ন তোলেন সূর্যকান্ত। মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিলেন বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র। ছাত্র সংসদ নির্বাচন বন্ধ রাখার সরকারি আর্জির প্রতিবাদে আজ রাজ্যের বিভিন্ন কলেজে বিক্ষোভ দেখায় ছাত্র সংগঠনগুলি।  শিক্ষামন্ত্রীর দাবি, বিক্ষোভকারীরা মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের স্বার্থ বিরোধী কাজ করছেন।
মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য অতিরিক্তি পুলিস মোতায়েন করতে হবে। সেজন্য আগামী ছমাস ছাত্র সংসদ নির্বাচন করা যাবেনা। সোমবার শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু এই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণার পরই শোরগোল পড়ে যায় গোটা রাজ্যে। রাজ্যের বিভিন্ন কলেজে বিক্ষোভ দেখায় ছাত্র সংগঠনগুলি।  নির্বাচন বন্ধের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র।
 
 
শিক্ষামন্ত্রীর দাবি, যাঁরা ধর্মঘটের বিরোধিতা করছেন তাঁরা মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদেরই বিরোধিতা করছেন। প্রশ্ন উঠেছে গত বছরেও এই সময়েই ছাত্র নির্বাচন হয়েছিল, তবে এবারে নিষেধের খাঁড়া কেন। তবে, কী ফের কোনও গার্ডেনরিচ কাণ্ড এড়াতেই এই সিদ্ধান্ত। নিজেরদের দলের ওপরই কী আস্থা রাখতে পারছেনা সরকার।
 
শিক্ষামন্ত্রীর দাবি, তাঁরা ছাত্রভোটে অতিরিক্ত পুলিস মোতায়েন করতে চান। তবে কী রাজ্যের এই মুহুর্তে পুলিস ছাড়া ছাত্রসংসদ নির্বাচন সম্ভব নয়?