কসবায় শিক্ষিকার রহস্যজনক মৃত্যু

Last Updated: Monday, July 8, 2013 - 10:37

কসবার বেদিয়াডাঙায় ফ্ল্যাটের মধ্যে উদ্ধার হল এক শিক্ষিকার ক্ষতবিক্ষত দেহ। মৃত বাহাত্তর বছরের সুলোচনা চেরি একাই থাকতেন ওই ফ্ল্যাটে। লণ্ডভণ্ড ঘর দেখে পুলিসের প্রাথমিক অনুমান, লুঠপাটের উদ্দেশে এই খুন হয়ে থাকতে পারে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ির পরিচারিকাকে আটক করা হয়েছে।  নিরাপত্তাহীনতার অভিযোগ ফের উসকে দিল কসবার বেদিয়াডাঙা সেকেন্ড লেনের লোকনাথ আবাসনে খুনের ঘটনা। চারতলার ফ্ল্যাটে একা থাকতেন বাহাত্তর বছরের সুলোচনা চেরি। ন্যাশনাল গার্লস স্কুলের প্রাক্তন ওই শিক্ষিকা ইদানিং বাড়িতেই টিউশন পড়াতেন। হাজরায় একটি কোচিং সেন্টারেও পড়াতে যেতেন নিয়মিত। রবিবার সকালে বেরোলেও দুপুরের মধ্যে বাড়ি ফিরে আসেন তিনি। বিকেলে ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় তাঁর ক্ষতবিক্ষত দেহ।  
 
বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ পড়তে ফ্ল্যাটে এসেছিলেন তাঁর এক ছাত্রী। বারবার দরজা ধাক্কা দিলেও তা না খোলায় তিনি ফিরে চলে যান। তবে সেইসময় ফ্ল্যাটের ভিতর থেকে কিছু রহস্যজনক আওয়াজ তাঁর কানে এসেছিল বলে অভিযোগ।   
 
শুধু পুরুষকণ্ঠই নয়, সুলোচনাদেবীর গোঙানির শব্দও শোনা যাচ্ছিল বলে দাবি ওই ছাত্রীর।
পুলিস এখনই এনিয়ে কিছু বলতে নারাজ।
ফ্ল্যাটের আলমারি, লকার সবকিছুই তছনছ অবস্থায় ছিল। গয়নার বাক্সগুলিও খালি অবস্থায় উদ্ধার হয়েছে। ঘরের দেওয়ালে রক্তমাখা হাত ও পায়ের ছাপ মিলেছে। নমুনা সংগ্রহ করেছেন ফিঙ্গারপ্রিন্ট বিশেষজ্ঞরা।    
 
লুঠপাটের উদ্দেশে খুন কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।    
পুলিস কুকুর নিয়ে এসেও তদন্ত চালানো হয়।
এর সূত্র ধরেই পুলিসের অনুমাম, খুনের পর আততায়ী সম্ভবত ফ্ল্যাট থেকে বেরিয়ে পায়ে হেঁটে কিছুটা পথ যায়। পরে সেখান থেকে গাড়িতে উঠে পালিয়ে যায় সে।  
দিনেদুপুরে এভাবে ফ্ল্যাটে ঢুকে খুনের ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকার বাসিন্দারা।   
 



First Published: Monday, July 8, 2013 - 12:05


comments powered by Disqus