নিক্কোপার্কে এক টুকরো টেক্সাস

এক টুকরো টেক্সাস। আর তাতেই নানা কাণ্ডকারখানা বন্দুকবাজদের। হলিউডের কাউবয় সিনেমার অ্যাকশন এবার নিক্কোপার্কে। না, পর্দায় নয়। একেবারে জলজ্যান্ত অভিনয়। শোনা যাবে পিস্তলের গুলির আওয়াজ। না, ম্যাকেনাস গোল্ডের মত মহাকাব্যিক কিছু নয়। কিন্তু তবুও তো টেক্সাস। উঠে এসেছে নিক্কোপার্কে। ভিন রাজ্যের স্ট্যান্টম্যানদের এই শো এবার শীতে নতুন আকর্ষণ কলকাতায়। বালিয়াড়ি। বার, জেলখানা, শেরিফের অফিস। কাঠের তৈরি খালি মদের পিপে। খানিকটা শুকনো ঝোপঝাড়। এসব নিয়েই এক টুকরো টেক্সাস। দিব্যি নায়ককে প্রেম নিবেদন করছিলেন প্রেমিকা। এমন সময়ে হঠাত্‍ গুলি বন্দুকবাজদের। পানশালার মধ্যে উধাও প্রেমিকযুগল। ছুটে এল কাউবয় প্যান্ট, উঁচু হ্যাট পরা বন্দুকবাজেরা। শুরু গুলির লড়াই। দখল হয়ে গেল শেরিফের অফিস। শেরিফের অফিসের নিরাপত্তারক্ষীদের তুমুল উত্তমমধ্যম দিল বন্দুকবাজেরা।

Updated: Dec 13, 2013, 10:33 PM IST

এক টুকরো টেক্সাস। আর তাতেই নানা কাণ্ডকারখানা বন্দুকবাজদের। হলিউডের কাউবয় সিনেমার অ্যাকশন এবার নিক্কোপার্কে। না, পর্দায় নয়। একেবারে জলজ্যান্ত অভিনয়। শোনা যাবে পিস্তলের গুলির আওয়াজ। না, ম্যাকেনাস গোল্ডের মত মহাকাব্যিক কিছু নয়। কিন্তু তবুও তো টেক্সাস। উঠে এসেছে নিক্কোপার্কে। ভিন রাজ্যের স্ট্যান্টম্যানদের এই শো এবার শীতে নতুন আকর্ষণ কলকাতায়। বালিয়াড়ি। বার, জেলখানা, শেরিফের অফিস। কাঠের তৈরি খালি মদের পিপে। খানিকটা শুকনো ঝোপঝাড়। এসব নিয়েই এক টুকরো টেক্সাস। দিব্যি নায়ককে প্রেম নিবেদন করছিলেন প্রেমিকা। এমন সময়ে হঠাত্‍ গুলি বন্দুকবাজদের। পানশালার মধ্যে উধাও প্রেমিকযুগল। ছুটে এল কাউবয় প্যান্ট, উঁচু হ্যাট পরা বন্দুকবাজেরা। শুরু গুলির লড়াই। দখল হয়ে গেল শেরিফের অফিস। শেরিফের অফিসের নিরাপত্তারক্ষীদের তুমুল উত্তমমধ্যম দিল বন্দুকবাজেরা।

এরপর দখল জেলখানা। বন্দুকবাজেরা মুক্ত করে নিল সঙ্গীদের। একপাশে তৈরি তরতাজা ঘোড়া। প্রয়োজনে ঘোড়া ছুটিয়ে উধাও হবে বন্দুকবাজের দল। রীতিমতো রোমহর্ষক সব ব্যাপার স্যাপার। না, হলিউডের সিনেমা নয়। এমন দৃশ্য প্রতিদিন চাক্ষুষ করা যাবে নিক্কো পার্কে। বিনোদনের এই নতুন ফর্ম্যাট শুরু হল শুক্রবার। সপ্তাহে দুদিন হবে শো। এজন্য দক্ষিণ ভারত এবং মুম্বই থেকে আনা হয়েছে স্টান্ট ম্যানদের।

দর্শকদের একঘেয়েমি থেকে মুক্তি এই শো, যথেষ্ট আশাবাদী নিক্কোপার্ক কর্তৃপক্ষ।