ট্রাফিক অ্যাসিসট্যান্ট'কে চড় মেরে বিতর্কে দোলা সেন

Last Updated: Friday, February 17, 2012 - 22:23

কর্তব্যরত ট্রাফিক অ্যাসিসট্যান্টকে মারধরের ঘটনায় এখন রীতিমত বিতর্কের মুখে তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী দোলা সেন। আজ বিষয়টি নিয়ে বরানগর থানায় ট্রাফিক অ্যাসিসট্যান্টের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ দায়ের করলেন উত্তরপাড়া পুরসভার তৃণমূল কাউন্সিলর সুমিত চক্রবর্তী। দোলা সেনের পক্ষে সওয়াল করে তিনি জানিয়েছেন নেত্রীর গাড়ির চালকের কাছে ঘুষ চাওয়ার জেরেই তৃণমূল নেত্রীর সঙ্গে বচসা হয় ট্রাফিক অ্যাসিসট্যান্ট প্রভাস ঘুঘুর।
শুক্রবার সকালে বালি ব্রিজে একটি গাড়িকে আটকানো নিয়ে ঝামেলার সূত্রপাত হয় বলে দাবি করেন ন্যাশনাল হাইওয়ে অথিরিটি নিযুক্ত একটি বেসরকারি নিরাপত্তা সংস্থায় কর্মরত ওই ট্রাফিক অ্যাসিসট্যান্ট। ওই গাড়িটিতে শ্রমমন্ত্রী পূর্ণেন্দু বসুর মেয়ের বিয়ের জন্য মালপত্র যাচ্ছিল বলে জানা গিয়েছে। আটকানোর পরই কয়েকজনকে ফোন করেন ওই গাড়ির চালক। এরপরই ঘটনাস্থলে আসেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী দোলা সেন। 

তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠনের রাজ্য সভানেত্রী দোলা সেনের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগও আনেন নিরাপত্তাকর্মী প্রভাত ঘুঘু।  শুক্রবারই এই মর্মে বরানগর থানায় দোলা সেনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। দায়ের করা অভিযোগের ক্রমিক সংখ্যা ৭৮৩১/১২। সাম্প্রতিক অতীতে বেশ কিছু বিতর্কে নাম জড়িয়েছে পূর্ণেন্দু বসু এবং তাঁর ঘনিষ্ঠ তৃণমূল নেত্রী দোলা সেনের। কিছুদিন আগে কেষ্টপুরে তৃণমূল কর্মী খুনের ঘটনার জেরে প্রমোটার সিন্ডিকেটের সঙ্গেও এই দুই নেতা-নেত্রীর যোগাযোগের অভিযোগ ওঠে।



First Published: Saturday, February 18, 2012 - 11:27


comments powered by Disqus