মন্ত্রিত্ব বদলের ক্ষোভে অবসরের সিদ্ধান্ত রবীন্দ্রনাথের

মন্ত্রিত্ব বদল নিয়ে ক্ষোভ জানিয়ে এবার রাজনীতি থেকেই অবসর নেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। বুধবার রাজ্য মন্ত্রিসভার রদবদলের সময় তাঁকে কৃষি দফতর থেকে সরিয়ে পরিসংখ্যান ও উন্নয়ন দফতরের রাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ। এর আগে স্কুল শিক্ষা দফতরের দায়িত্ব থেকেও সরানো হয়েছিল তাঁকে। বারবার দফতর বদলে তিনি যে অসন্তুষ্ট তা গোপন করেননি রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। গত দেড় বছরে দু-বার তাঁর দফতর বদল হয়েছে। মন্ত্রিসভায় রদবদলের পর অনেকেই নতুন দায়িত্ব বুঝে নেন। বৃহস্পতিবার রবীন্দ্রনাথবাবু কিন্তু নতুন দফতরে যাননি। দায়িত্বও বুঝে নেননি।

Updated: Nov 23, 2012, 04:23 PM IST

মন্ত্রিত্ব বদল নিয়ে ক্ষোভ জানিয়ে এবার রাজনীতি থেকেই অবসর নেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। বুধবার রাজ্য মন্ত্রিসভার রদবদলের সময় তাঁকে কৃষি দফতর থেকে সরিয়ে পরিসংখ্যান ও উন্নয়ন দফতরের রাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ। এর আগে স্কুল শিক্ষা দফতরের দায়িত্ব থেকেও সরানো হয়েছিল তাঁকে। 
বারবার দফতর বদলে তিনি যে অসন্তুষ্ট তা গোপন করেননি রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। গত দেড় বছরে দু-বার তাঁর দফতর বদল হয়েছে। মন্ত্রিসভায় রদবদলের পর অনেকেই নতুন দায়িত্ব বুঝে নেন। বৃহস্পতিবার রবীন্দ্রনাথবাবু কিন্তু নতুন দফতরে যাননি। দায়িত্বও বুঝে নেননি।
২০১১-এ রাজ্যে ক্ষমতা পরিবর্তনের পর মন্ত্রীদের তালিকায় রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যের নাম দেখে অবাক হননি কেউ। সিঙ্গুর আন্দোলনের অন্যতম এই কাণ্ডারীর মন্ত্রিসভায় জায়গা কার্যত পাকাই ছিল। তাঁকে দেওয়া হয় স্কুল শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব। তবে পরিবর্তন আসে কয়েকমাসের মধ্যেই। দফতর বদলে শিক্ষামন্ত্রী থেকে রবীন্দ্রনাথবাবুকে কৃষিমন্ত্রকের দায়িত্ব  দেওয়া হয়। মন্ত্রিসভার সদ্য রদবদলে আবারও পরিবর্তনের কোপে পড়লেন তিনি। এবার তিনি পরিসংখ্যান ও কর্মসূচি রূপায়ণ দফতরের দায়িত্বে। নিজের নতুন দফতর সম্পর্কে তিনি যে বিশেষ আগ্রহী নন, সেকথা স্পষ্টই জানিয়েছেন তিনি।
মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ইতিমধ্যেই তিনি পাঠিয়ে দিয়েছেন পদত্যাগ পত্রও।