শ্যামাপুজো শেষে শীত শহরে

দীপাবলির রাত পোহাতেই শহর জুড়ে শীতের আমেজ। অন্যান্য বার দীপাবলির অনেক পরে শীত এলেও এবারে আলোর উত্সবে মেতেই শীতকে ঘরে তুলল রাজ্যবাসী। এবছর দুর্গাপুজোর সময় কিছুটা পিছিয়ে যাওয়ায় দেবীপক্ষের পর থেকেই ছিল শিরশিরে ভাব। ফলে বহুদিন পর বেশ কিছুটা হেমন্তের আমেজ গায়ে মেখেছে পশ্চিমবাংলা। অবশেষে দীপাবলির রাত নিয়ে এল শীত।

Updated: Nov 14, 2012, 11:59 AM IST

দীপাবলির রাত পোহাতেই শহর জুড়ে শীতের আমেজ। অন্যান্য বার দীপাবলির অনেক পরে শীত এলেও এবারে আলোর উত্সবে মেতেই শীতকে ঘরে তুলল রাজ্যবাসী। এবছর দুর্গাপুজোর সময় কিছুটা পিছিয়ে যাওয়ায় দেবীপক্ষের পর থেকেই ছিল শিরশিরে ভাব। ফলে বহুদিন পর বেশ কিছুটা হেমন্তের আমেজ গায়ে মেখেছে পশ্চিমবাংলা। অবশেষে দীপাবলির রাত নিয়ে এল শীত।
উত্তুরে হাওয়ার প্রভাবে কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে আজ সকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৮.৫। যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও কিছুটা কমে ১৯.২ ডিগ্রি। যা স্বাভাবিকের চেয়ে ২ ডিগ্রি কম। আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, উত্তুরে হাওয়ার প্রভাবে আরও কমবে সর্বচ্চ তাপমাত্রা। ফলে ধীরে ধীরে বাড়বে শীত।
এদিকে লক্ষ্মীপুজোর পর থেকেই কলকাতায় আসতে শুরু করেছিল ভিনরাজ্যের ব্যবসায়ীরা। হেদুয়া থেকে ওয়েলিংটন শহরের সর্বত্রই শীতের পোষাকের পসরা সাজিয়ে অপেক্ষমান তারা। কলকাতাবাসীও শুরু করে দিয়েছে গরম পোষাকে মিঠেকড়া রোদ গায়ে মাখার প্রস্তুতি।