মুখ্যমন্ত্রীকে বিস্ফোরক চিঠি নজরুল ইসলামের

মুখ্যমন্ত্রীকে বিস্ফোরক চিঠি দিলেন আইপিএস অফিসার নজরুল ইসলাম। জন্মদিনে মুখ্যমন্ত্রীর পাঠানো শুভেচ্ছাবার্তা অগ্রাহ্য করে তীব্র ক্ষোভ জানিয়ে চিঠি লিখেছেন তিনি।  তাঁকে অপদস্থ করার জন্য সরাসরি অভিযোগ এনেছেন মুখ্যমন্ত্রীর সচিবালয়ের কার্যত প্রধান গৌতম সান্যালের বিরুদ্ধে। মুখ্যমন্ত্রীর সামনেই তাঁকে অপদস্থ করা হয়েছে বলে চিঠিতে জানিয়েছেন তিনি। গৌতমবাবু তাঁকে মহাকরণ ছেড়ে চলে যাওয়ার নির্দেশও দেন বলে অভিযোগ নজরুল ইসলামের। এই আইপিএস অফিসারের অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রীকে খুশি করার জন্য চাটুকারিতায় ব্যস্ত থাকেন গৌতম সান্যাল। 

Updated: Mar 11, 2013, 11:20 PM IST

মুখ্যমন্ত্রীকে বিস্ফোরক চিঠি দিলেন আইপিএস অফিসার নজরুল ইসলাম। তেসরা ফেব্রুয়ারি তাঁর জন্মদিনে মুখ্যমন্ত্রীর পাঠানো শুভেচ্ছাবার্তা অগ্রাহ্য করে তীব্র ক্ষোভ জানিয়ে চিঠি লিখেছেন তিনি। তাঁকে অপদস্থ করার জন্য সরাসরি অভিযোগ এনেছেন মুখ্যমন্ত্রীর সচিবালয়ের কার্যত প্রধান গৌতম সান্যালের বিরুদ্ধে।
চিঠিতে তিনি জানিয়েছেন, দিল্লি থেকে তাঁকে ডেকে এনে তাঁকে ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যানের পদ নিতে বলা হয়। তাঁর পদমর্যাদার সঙ্গে ওই পদ সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় বলে মুখ্যমন্ত্রীর সামনেই দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করেন তিনি। তিনি জানান, এডিজি পদের কোনও আইপিএস অফিসারই ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান পদে নিযুক্ত হতে পারেন না। তাঁকে শিক্ষা দফতরের প্রিন্সিপ্যাল সচিবের পদ দেওয়া যেতে পারত। অথবা পুলিসের এমন কোনও পদ দেওয়া যেতে পারত যেখান থেকে তিনি পুলিসের বদলি, টেন্ডার খুঁটিয়ে পরীক্ষার কাজ চালাতে পারতেন।
এমনকী এরাজ্যে চিটফান্ডগুলি যে ভাবে প্রতারণা চালিয়ে যাচ্ছে, সেবিষয়েও নজরদারি চালানোর উপযোগী কোনও পদ দেওয়া যেতে পারত। চিঠিতে তিনি একথাও জানিয়েছেন, এই সরকারের ঘনিষ্ঠ লোকজনেরাই চিটফান্ডগুলির সঙ্গে যুক্ত। ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করায়  মুখ্যমন্ত্রী আর দেখতে চান না বলে তাঁকে মহাকরণ থেকে চলে যেতে বলেন গৌতম সান্যাল। এই আইপিএস অফিসারের অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রীকে খুশি করার জন্য চাটুকারিতায় ব্যস্ত থাকেন গৌতম সান্যাল।  তাঁর অভিযোগ, সংখ্যালঘু উন্নয়ন নয় আসলে এই সরকারের প্রকৃত উদ্দেশ্য নয়। সিএমওর বিরুদ্ধে এই আইপিএস অফিসার তোপ দাগায় রীতিমতো অস্বস্তিতে খোদ মুখ্যমন্ত্রীও।