ডাক্তারের লোভে গর্ভেই শিশুর মৃত্যু: ২৪ ঘন্টা এক্সক্লুসিভ

ডাক্তারের লোভে গর্ভেই শিশুর মৃত্যু: ২৪ ঘন্টা এক্সক্লুসিভ

ডাক্তারের লোভে গর্ভেই শিশুর মৃত্যু: ২৪ ঘন্টা এক্সক্লুসিভকিছু বাড়তি টাকা রোজগারের লোভ।  আর সেই কারণেই হাসপাতালের আউটডোরে দেখাতে আসা প্রসূতিকে হাইজ্যাক করে নিজের ক্লিনিকে নিয়ে গেলেন এক চিকিত্সক। এই অভিযোগ উঠেছে, কসবার একটি নামি বেসরকারি হাসপাতালের চিকিত্সক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে। ৭ অক্টোবর স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ ধ্রুবা রায়ের অধীনে অস্ত্রোপচার হওয়ার কথা ছিল অন্তঃসত্ত্বা সর্বাণী ঘোষের। অভিযোগ, পরিবারের লোকেদের ভুল বুঝিয়ে, ওই হাসপাতালেরই আরেক চিকিত্সক সুদীপ্ত ভট্টাচার্য সর্বাণীকে নিজের ক্লিনিকে নিয়ে যান। ঠিক সময়ে অস্ত্রোপচার না হওয়ায় গর্ভেই শিশুটির মৃত্যু হয়।

কসবার একটি নামি বেসরকারি হাসপাতালে স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ ধ্রুবা রায়ের অধীনে চিকিত্সাধীন ছিলেন সন্তোষপুর-রাজাপুরের বাসিন্দা সর্বাণী ঘোষ। ঠিক ছিল, ৭ অক্টোবর সন্তান প্রসবের জন্য অস্ত্রোপচার করা হবে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজের নার্স সর্বানী ঘোষের। এরজন্য ধ্রুবা রায়ের পাশাপাশি স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ সুদীপ্ত ভট্টাচার্যকেও দায়িত্ব দেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এরপরই বাধে বিপত্তি। অভিযোগ, হাসপাতালকে অন্ধকারে রেখে সর্বাণী ঘোষকে নিজের ক্লিনিকে নিয়ে যান  সুদীপ্ত ভট্টাচার্য। তিনবার তিনটি পৃথক ক্লিনিকে মোটা টাকা ফি দিয়ে সুদীপ্ত ভট্টাচার্যকে দেখাতে বাধ্য হন সর্বাণী।
 
চিকিত্সক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যের নির্দেশ মতো, ১০ অক্টোবর সন্তান প্রসবের জন্য সর্বাণীকে কসবার বেসরকারি হাসপাতালটিতে ভর্তি করা হয়। পরিবারের অভিযোগ, আল্ট্রা সনোগ্রাফি রিপোর্টে, গর্ভস্থ শিশুর অবস্থার অবনতি হচ্ছে বোঝা গেলেও অস্ত্রোপচার করেননি সুদীপ্ত ভট্টাচার্য। এর দুদিন পরে গর্ভেই মৃত্যু হয় শিশুটির।
 
কোড অফ কন্ডাক্ট ভেঙে নিজের ক্লিনিকে রোগী নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে চিকিতসক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যকে বরখাস্ত করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে চিকিত্‍সার গাফিলতিতে সর্বাণী ঘোষের গর্ভস্থ সন্তানের মৃত্যুর অভিযোগ মানতে নারাজ হাসপাতাল।
 

 
অভিযুক্ত বেসরকারি হাসপাতাল এবং চিকিত্‍সক সুদীপ্ত ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে তিলজলা থানায় এফআইআর দায়ের করেছে সর্বাণী ঘোষের পরিবার।  তাঁদের বিরুদ্ধে ৩০৪ -এ এবং ৩৪ ধারায় গাফিলতিতে শিশু মৃত্যুর অভিযোগ আনা হয়েছে।
 

First Published: Sunday, November 18, 2012, 16:02


comments powered by Disqus