ধর্ষণের অভিযোগ মদন মিত্রর আপ্ত সহায়কের বিরুদ্ধে

ধর্ষণের অভিযোগ মদন মিত্রর আপ্ত সহায়কের বিরুদ্ধে

ধর্ষণের অভিযোগ মদন মিত্রর আপ্ত সহায়কের বিরুদ্ধে বিপাকে পড়লেন পরিবহণমন্ত্রী মদন মিত্রের প্রাক্তন আপ্ত সহায়ক বাপি করিম। গড়ফা থানায় তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণ, খুনের চেষ্টা এবং প্রতারণার অভিযোগ দায়ের হয়েছে। এরপর থেকেই পলাতক বাপি করিম। আজ আলিপুর আদালতে অভিযোগকারিণীর গোপন জবানবন্দিও নেওয়া হয়েছে। অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য বাপি করিমের পরিবারের তরফে মহিলাকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ।

বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক মহিলার সঙ্গে আড়াই বছর ধরে সহবাস করার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে মদন মিত্রের প্রাক্তন আপ্ত সহায়ক বাপি করিমের বিরুদ্ধে। ২০১০ সাল থেকেই এক মহিলার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন মন্ত্রীর প্রাক্তন আপ্ত সহায়ক। এমনকী তিনি বিবাহিত এই তথ্য গোপন রেখেই শুরু হয় মেলামেশা। মৌলবী ডেকে মিথ্যা বিয়ে করা হয় বলেও অভিযোগ। আইনি বিবাহের কথা তুললেই মহিলাকে মারধর করা হতো বলে অভিযোগ উঠেছে। শুধু তাই নয়, মহিলার কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে কয়েক লক্ষ টাকা নিয়েছেন বাপি করিম। ওই টাকাতেই হাওড়ার পাঁচলা এলাকায় জমি ছাড়াও একটি গাড়ি কেনেন মদন মিত্রের প্রাক্তন আপ্ত সহায়ক। মহিলার পরিচালিত সংস্থার যুগ্ম ডিরেক্টর হন বাপি করিম। সেইসূত্রে মহিলার কয়েক লক্ষ টাকা আত্মসাত্‍ করেন বাপি করিম। এরপরই মহিলার সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে দিয়ে বাপি করিম।
 
গোটা বিষয়টি পরিবহণমন্ত্রী মদন মিত্রকে জানান ওই মহিলা। পরিবহণমন্ত্রী বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিলেও কাজের কাজ কিছু হয়নি। উনিশে ডিসেম্বর মহিলা গড়ফা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মিথ্যা বিবাহ(৪৯৪), ধর্ষণ(৩৭৬), খাবারের মধ্যে বিষ মিশিয়ে মারার চেষ্টা(৩২৮), প্রতারণা(৪২০), ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়(৩৮৪) প্রভৃতি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
 
পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর থেকেই অভিযুক্ত বাপি করিম পলাতক। অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য বাপি করিমের পরিবারের তরফে মহিলাকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ। পুলিসের কাছে সেকথা জানিয়েছেন অভিযোগকারিণী।

First Published: Wednesday, December 26, 2012, 17:44


comments powered by Disqus