মিল্ক কেক

ক্রিসমাস, নিউইয়ার কেটে যেতেই বাঙালিরা ব্যস্ত হয়ে পড়ে পৌষপার্বনের ব্যবস্থাপনায়। পৌষসংক্রান্তি মানেই হরেকরকম পিঠেপুলি আর মিষ্টির সম্ভার। পিঠে বানাতে যেরকম সময় লাগে, সেরকমই লাগে দক্ষতা। চাই বহুক্ষণ ধরে পাক দেওয়ার ধৈর্যও। তাই আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এলাম সহজ মিষ্টির রেসিপি মিল্ক কেক। বানাতে সময় যেরকম কম লাগে, তেমনই পদ্ধতিও খুব সহজ। আর স্বাদ? একবার বানিয়েই দেখুন না।

Updated: Jan 9, 2013, 07:41 PM IST

ক্রিসমাস, নিউইয়ার কেটে যেতেই বাঙালিরা ব্যস্ত হয়ে পড়ে পৌষপার্বনের ব্যবস্থাপনায়। পৌষসংক্রান্তি মানেই হরেকরকম পিঠেপুলি আর মিষ্টির সম্ভার। পিঠে বানাতে যেরকম সময় লাগে, সেরকমই লাগে দক্ষতা। চাই বহুক্ষণ ধরে পাক দেওয়ার ধৈর্যও। তাই আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এলাম সহজ মিষ্টির রেসিপি মিল্ক কেক। বানাতে সময় যেরকম কম লাগে, তেমনই পদ্ধতিও খুব সহজ। আর স্বাদ? একবার বানিয়েই দেখুন না।
কী কী লাগবে
দুধ(হোল মিল্ক): ৬ কাপ
লেবুর রস: ৩ টেবিল চামচ
চিনি: আধ কাপ
এলাচ গুঁড়ো: ৩ চা চামচ
ঘি: ২ টেবিল চামচ
পেস্তা: ১ টেবিল চামচ(স্লাইস করে কাটা, সাজানোর জন্য)

কীভাবে বানাবেন

একটা তলা মোটা সসপ্যানে মাঝারি আঁচে দুধ ফোটান। মাঝে মাঝে হাতা দিয়ে নাড়তে থাকবেন নাহলে তলায় ধরে যেতে পারে। দুধ ফুটতে শুরু করলে অল্প অল্প করে লেবুর রস দিন যাতে দুধ ছানা কাটতে শুরু করে। যখন ভাল মত ছানা কেটে যাবে দু`, তিন কাপ ছানার জল সসপ্যান থেকে তুলে নিন। এতে কিছুটা টক কমে যাবে। পনেরো-কুড়ি মিনিট ধরে নাড়তে থাকুন যতক্ষণ না ভাল করে ছানা কেটে যাচ্ছে। হাতা দিয়ে চেপে চেপে ছানা মিহি করতে থাকুন। জল টেনে গেলে ছানার মধ্যে চিনি মেশান। খেয়াল রাখবেন ছানা যেন বেশি শুকিয়ে না যায়। ছানা আর চিনি ভাল করে মিশে যাওয়া পর্যন্ত নাড়তে থাকুন। ভাল করে মিশে গেলে এলাচ গুঁড়ো ও ঘি মিশিয়ে আরও ৩-৪ মিনিট ধরে ক্রমাগত নাড়তে থাকুন। ছানা এইসময় হালকা বাদামি রং ধারণ করবে। কড়াইয়ের গা থেকে ছেড়ে এসে পুরো ছানা মিহি হয়ে একসঙ্গে হয়ে এলে নামিয়ে নিন।
পুরো ছানার মিশ্রণ একটা চ্যাটানো থালায় নিয়ে চ্যাপ্টা হাতার পিছন দিয়ে চাপ দিয়ে সমান করে নিন। চারধারে চৌকো করে নিয়ে ওপরে পেস্তা সাজিয়ে দিয়ে ১০ ঘণ্টা রেখে দিন। পুরো ভাল করে সেট হয়ে গেলে হালকা ছুরি দিয়ে ছোট ছোট চৌকো মিষ্টির আকারে কেটে নিন।