শরীরের কোথায় তিল থাকলে কী হয়, জেনে নিন

সমুদ্রশাস্ত্র মতে, ভাগ্য বা ভবিষ্যত গড়ে তোলার মতো কিছু বিষয় মানুষ জন্মগত ভাবেই পেয়ে থাকে। তার একটি হল, তিল।

Updated: Sep 8, 2018, 08:54 AM IST
শরীরের কোথায় তিল থাকলে কী হয়, জেনে নিন

নিজস্ব প্রতিবেদন: আপনার ভবিষ্যত কেমন, তা অনেকটাই নির্ভর করে আপনার কর্মের উপর। আর কিছুটা হল আপনার ভাগ্য, যা মানুষ জন্মগত ভাবে পেয়ে থাকে। তবে ভাগ্য বদলের ক্ষেত্রেও কঠোর পরিশ্রমের কোনও বিকল্প হয়না।

সমুদ্রশাস্ত্র মতে, ভাগ্য বা ভবিষ্যত গড়ে তোলার মতো কিছু বিষয় মানুষ জন্মগত ভাবেই পেয়ে থাকে। তার একটি হল, তিল। তিলতত্ত্ব মতে, শরীরের বিভিন্ন স্থানের তিল বলে দিতে পারে ভবিষ্যতে কী আছে আপনার ভাগ্যে। তিলতত্ত্ব অনুযায়ী, শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা তিলের অবস্থান ভাগ্য বা ভবিষ্যত সম্পর্কে শুভ-অশুভ নানা বিষয়কে ইঙ্গিত করে। শুধু তার অর্থ বুঝে নিতে হবে। এ বার দেখে নেওয়া যাক, কোথায় তিল থাকলে সম্পত্তি লাভ বা অর্থলাভের পথ সুগম হয়!

ঠোঁটের ওপরে তিল: ঠোঁটের ঠিক ওপরেই তিল থাকলে, বুঝতে হবে খুব অল্প বয়স থেকেই সেই ব্যক্তি বা মহিলা প্রভূত সম্পত্তির অধিকারী হয়ে উঠবেন। এঁরা একটু জেদি স্বভাবের হন।

নাকের ডান দিকে তিল: নাকের ডানদিকে যদি তিল থাকে, তাহলে সেই মানুষটির ধনী হয়ে ওঠার সম্ভাবনা প্রবল। ৩০ বছর বয়স থেকেই এঁরা সাফল্যের সিঁড়ি চড়তে থাকেন।

কোমরে তিল: সমুদ্রশাস্ত্র বিশেষজ্ঞদের মতে, কোমরে তিল থাকলেও ধনী হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল থাকে। যাঁদের কোমরে তিল থাকে, তাঁদের সম্পত্তি সমৃদ্ধি অনেক বেশি থাকে।

গাঢ় রঙের তিল: শরীরে যদি গাঢ় রঙের ও ছোট্ট আকারের তিল কোথাও থাকে, তাহলে বুঝতে হবে সেই ব্যক্তি বা মহিলা বিয়ের পর ধনী হতে চলেছেন। এমনই দাবি সমুদ্রশাস্ত্র বিশেষজ্ঞদের।

ডান হাতে তিল: তিল যদি ডান হাতের চেটোতে থাকে, তাহলে সেই ব্যক্তি বেশ ধনী হয়। খুব কম বয়স থেকে এঁরা সম্পত্তি পেতে থাকেন। ফলে সহজেই ধনী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে এঁদের।

সমুদ্রশাস্ত্র বিশেষজ্ঞদের মতে, নাভির আশেপাশে, বা চিবুকে তিল থাকলেও ধনী হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল থাকে। পাশাপাশি বুকে তিল থাকলে সেই ব্যক্তি বা মহিলা সহজে ধনী হন, পাশাপাশি এঁরা খুবই শান্তিপূর্ণ জীবন যাপন করেন। এছাড়া কানের আশপাশে তিল থাকলেও তাঁর ধনী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close