ভান্ডারা ধর্ষণ কাণ্ডে নিগৃহীতাদের পরিচয় ফাঁস শিন্ডের, সমালোচনায় বিজেপি

Last Updated: Friday, March 1, 2013 - 13:20

আজ সংসদে ভান্ডারা ধর্ষণ কাণ্ড নিয়ে বক্তব্য পেশ করার সময় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুশীল কুমার শিন্ডে নিগৃহীতা তিন বোনের পরিচয় ফাঁস করে দিলেন। আজ এই ঘটনায় তৎক্ষণাৎ তীব্র প্রতিক্রিয়া শুরু হয় সাংসদে। স্বারাষ্ট্রমন্ত্রীর কথার প্রথম প্রতিবাদ জানান বিজেপি সাংসদ অরুন জেটলি। এরপর অন্য বিজেপি সাংসদরাও যোগ দেন তাঁর সঙ্গে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অবশ্য পড়ে এই ঘটনার জন্য ভুল স্বীকার করে নিয়েছেন।
দু'সপ্তাহ কেটে গেলেও মহারাষ্ট্রের ভান্ডারাতে তিন নাবালিকা বোনকে ধর্ষণ করে খুনের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকেই গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিস। এই ঘটনা নিয়ে রাজ্য এবং কেন্দ্রীয়সরকার সর্বস্তরে প্রবল সমালোচনার সম্মুখীন হয়েছে। উঠেছে গাফিলতির অভিযোগ। আজ কিছুটা হলেও ঘুরিয়ে গাফিলতির দায় স্বীকার করে নিয়েছে পুলিস। তাদের  তরফ থেকে জানানো হয়েছে এই ঘটনার যুক্ত সন্দেহভাজনদের চিহ্নিত করা গেছে কিন্তু প্রত্যক্ষদর্শীদের অভাবে কাউকেই এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার করা যায়নি।
নাগপুর থেকে ৬৫ কিলোমিটার দূরে ভান্ডারা জেলার একটি গ্রামের ১১, ৮ ও ৬ বছরের তিন বোন গত ১৪ ফেব্রুয়ারি থেকে নিঁখোজ ছিল। নিঁখোজ হওয়ার দু`দিন পর ওই গ্রামেরই একটি কুয়োর মধ্যে ওই তিন বোনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক ময়নাতদন্তের রিপোর্টে প্রমাণিত হয়ে ধর্ষণ করার পর ওই তিন কিশোরীকে নৃশংস ভাবে হত্যা করা হয়েছে। অনুমান করা হচ্ছে খাবারের লোভ দেখিয়ে স্কুলফেরত তিনটি মেয়েকে গ্রামের বাইরে ওই কুয়োর কাছে নিয়ে গিয়ে তাদের উপর পৈশাচিক অত্যাচার চালায় দুষ্কৃতীরা।
ওই তিন মেয়ের মা সমগ্র ঘটনায় প্রথম থেকেই চরম পুলিসি গাফিলতির অভিযোগ এনেছিলেন। তিনি দাবি করেছিলেন প্রথম থেকে সক্রিয় হলে হয়ত তাঁর মেয়েদের প্রাণ হারাতে হত না।
ইতমধ্যেই চলতি সপ্তাহে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের একটি দল ভান্ডারার মুরওয়াদি গ্রামে ঘটনাস্থল সরোজমিন তদন্তে যান। 



First Published: Friday, March 1, 2013 - 15:40


comments powered by Disqus