তিন ঘণ্টায় `হাইজ্যাক` নাটকের সমাপ্তি

ঘড়ির কাটা তখন ১.৩০-এর ঘর ছুঁই ছুঁই। তিরুবনন্তপুরম বিমানবন্দরের ৩ ঘণ্টা ধরে চলা টানটান নাটকের যবনিকাপতন ঘটল। তারপরই আবু ধাবি থেকে আসা এয়ার ইণ্ডিয়ার বিমানটি কোচির উদ্দেশ্যে উড়ে যায়। কিন্তু ততক্ষণে দেশের প্রায় সবকটি বিমানবন্দরে চূড়ান্ত সতর্ক বার্তা পৌঁছে গিয়েছে। `হাইজ্যাক এলার্ম` বাজানোয় ওই বিমানের চালকের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে এয়ার ইন্ডিয়া কতৃপক্ষ।

Updated: Oct 19, 2012, 03:41 PM IST

ঘড়ির কাটা তখন ১.৩০-এর ঘর ছুঁই ছুঁই। তিরুবনন্তপুরম বিমানবন্দরের ৩ ঘণ্টা ধরে চলা টানটান নাটকের যবনিকাপতন ঘটল। তারপরই আবু ধাবি থেকে আসা এয়ার ইণ্ডিয়ার বিমানটি কোচির উদ্দেশ্যে উড়ে যায়। কিন্তু ততক্ষণে দেশের প্রায় সবকটি বিমানবন্দরে চূড়ান্ত সতর্ক বার্তা পৌঁছে গিয়েছে। `হাইজ্যাক এলার্ম` বাজানোয় ওই বিমানের চালকের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে এয়ার ইন্ডিয়া কতৃপক্ষ।
বিমান চালক জানিয়েছেন, বেশ কিছু উত্তেজিত যাত্রী ককপিটে ঢোকার চেষ্টা করায় তিনি চূড়ান্ত পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হন। যদিও এই দাবি মানতে চাননি বিমানযাত্রীরা। বিমানবন্দর আধিকারিকরাও প্রথমিক তদন্তের পর জানিয়েছেন, চালক অপ্রয়োজনীয় ভাবেই `হাইজ্যাক এলার্ম` বাজিয়েছেন।
ঘটনার সূত্রপাত আজ সকালে। ৪৪২২ এয়ার ইন্ডিয়া, আবু ধাবি-কোচি বিমানটিকে খারাপ আবহাওয়ার জন্য তিরুবনন্তপুরমে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। সকাল ৬.৩০ মিনিটে বিমানটিকে নামিয়ে আনা হলেও যাত্রীদের কোচি পাঠিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেয় বিয়ামবন্দর কতৃপক্ষ। কিন্তু অভিযোগ, অস্বাভাবিক দেরি হয়ে যাওয়ায় কথা মানতে চাননি যাত্রীরা।
ওই বিমানের এক যাত্রী টেলিফোনে অভিযোগ করেন, "৩ ঘণ্টা অপেক্ষা করার পর, আমাদের জানানো হয় সড়ক পথে কোচি চলে যাওয়ার জন্য।" তিনি আরও বলেন, দীর্ঘক্ষণ তাঁদের খাবার ও পানীয় জল দেওয়া হয়নি। বন্ধ ছিল বাতানুকুল যন্ত্রও। ফলে চড়ম দুর্ভোগে পড়েন যাত্রীরা। বিক্ষুব্ধরা বিমান ছেড়ে যেতেও রাজি ছিল না বলে জানিয়েছেন ওই যাত্রী। বিশৃঙ্খলা ছড়ানোর অভিযোগে এয়ার ইন্ডিয়া কতৃপক্ষ কয়েকজনকে গ্রেফতার করতে চাইলেও, স্থানীয় পুলিস তা অস্বীকার করে বলে জানা গিয়েছে। অন্যদিকে এয়ারপোর্ট অথরিটি অফ ইণ্ডিয়াকে এদিনের ঘটনার বিস্তারিত তদন্ত করার অনুরোধ জানিয়েছেন সেরাজ্যের গৃহমন্ত্রী থিরুভানচূড় রাধাকৃষ্ণণ।