জেলাশাসকের মুক্তি নিয়ে চাপ বাড়ছে ছত্তিসগড় সরকারের ওপর

Last Updated: Monday, April 23, 2012 - 13:39

মাওবাদীদের দেওয়া সময়সীমা যত এগোচ্ছে, জেলাশাসকের মুক্তি নিয়ে ততই চাপ বাড়ছে ছত্তিসগড় সরকারের ওপর। জেলাশাসকের মুক্তির বিষয়টি খতিয়ে দেখতে মুখ্যমন্ত্রী রমন সিংয়ের নেতৃত্বে একটি কমিটি তৈরি হয়েছে। তবে মাওবাদীদের শর্তগুলি ছত্তিসগড় সরকার মানতে পারবে কি না, তা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। কারণ, মাওবাদীদের তরফে যে ৮ জনের মুক্তির দাবি জানানো হয়েছে, তাঁদের অনেকেই সংগঠনের শীর্ষস্থানীয় নেতা এবং বহু গুরুতর মামলার অভিযুক্ত। দ্বিতীয়ত অপারেশন গ্রিন হান্ট বন্ধ করা সম্ভব কি না, তা নিয়েও সংশয় রয়েছে। কারণ, অপারেশন গ্রিন হান্ট কেন্দ্রের এক্তিয়ারভুক্ত বিষয়। রাজ্য সরকার এ নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। তবে দান্তেওয়াড়া ও রায়পুরের জেলে বন্দি আদিবাসীদের মুক্তি দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে ভাবনাচিন্তা করা যেতে পারে বলে সরকারের সূত্রে খবর মিলেছে।
এদিকে, সোমবার সকালে হঠাত্ই অসুস্থ হয়ে পড়েন অপহৃত জেলাশাসকের অন্তঃস্বত্তা স্ত্রী আশা মেনন। তাঁর সঙ্গে দেখা করতে সুকমা পৌঁছেছেন ছত্তিসগড়ের স্বরাষ্ট্রসচিব, মুখ্যমন্ত্রীর প্রধান সচিব ও জনস্বাস্থ্য কারিগরি মন্ত্রী কেদার কশ্যপ। তাঁরা সুকমার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখবেন বলেও জানিয়েছেন। জেলাশাসক অপহরণ নিয়ে ছত্তিসগড় সরকারের তরফে এদিন সর্বদল বৈঠকও ডাকা হয়েছে।
জেলাশাসক অপহরণের ঘটনায় ছত্তিসগড় সরকারকে সবরকম সহযোগিতার আশ্বাস দিল কেন্দ্রীয় সরকার। সোমবার সাংবাদিকদের একথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব আর কে সিং। তিনি জানিয়েছেন, এব্যাপারে ছত্তিশগড় সরকারের সঙ্গে লাগাতার যোগাযোগ রেখে চলেছে কেন্দ্র।
জেলাশাসকের মুক্তির বিষয়ে মাওবাদীদের সঙ্গে দর কষাকষির জন্য মধ্যস্থতাকারী নিয়োগের ভাবনাও রয়েছে সরকারের। মধ্যস্থতাকারী হিসেবে ৩ জনের নাম উঠে আসছে। স্বামী অগ্নিবেশ, বিডি শর্মা এবং গদর। এর মধ্যে স্বামী অগ্নিবেশের সঙ্গে ছত্তিসগড় সরকারের সম্পর্ক ভাল না-হওয়ায়, তাঁকে মধ্যস্থতাকারী করা হবে কি না, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।
অপহৃত জেলাশাসক অ্যালেক্স পল মেনন মাওবাদীদের গোপন ডেরায় সুস্থ রয়েছেন বলে খবর পেয়েছে ছত্তিসগড় পুলিস। তিনি কোথায় রয়েছেন তা নিয়ে এখনও কোনও খবর মেলেনি। অন্ধ্রপ্রদেশের জগরগুন্ডার কাছে বড়েশেট্টির জঙ্গলে চালকবিহীন বিমানে তল্লাশি চালানোর খবর মিলেছে। তবে সেখানেই জেলাশাসককে লুকিয়ে রাখা হয়েছে কি না, তা নিয়ে ছত্তিসগড় পুলিসের তরফে স্পষ্ট করে কিছু বলা হয়নি। জেলাশাসকের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই আপাতত জোরদার অভিযান বন্ধ রেখেছে সরকার। সোমবার একটি টিভি চ্যানেলে একটি অডিও টেপ পৌঁছেছে। তার কণ্ঠস্বর অপহৃত জেলাশাসকের কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।  



First Published: Monday, April 23, 2012 - 13:42


comments powered by Disqus