লোকসভা নির্বাচনের রণনীতি ঠিক করতে ৩ বছর পর পটনায় অমিত শাহ

অমিত শাহের সফরের ওপর কড়া নজর রেখেছে বিরোধী শিবিরও। এর মধ্যেই আরএলএসপি নেতা তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী উপেন্দ্র কুশওয়াহাকে বিজেপি বিরোধী মহাজোটে শামিল হওয়ার আবেদন জানিয়ে রেখেছে। আসন বণ্টন নিয়ে এনডিএ-র অন্তর্কলহের দিকে তাকিয়ে রয়েছে কংগ্রেস ও রাজদ।

Updated: Jul 12, 2018, 11:02 AM IST
লোকসভা নির্বাচনের রণনীতি ঠিক করতে ৩ বছর পর পটনায় অমিত শাহ

নিজস্ব প্রতিবেদন: বেসুরো জদইউ-র মান ভাঙাতে পটনা পৌঁছলেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। জদইউ সভাপতি তথা বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের সঙ্গে প্রাতরাশ ও নৈশভোজে মিলিত হওয়ার কথা তাঁর। বিহারে সরকার গঠনের পর এই প্রথম সেরাজ্যে গেলেন অমিত শাহ। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, শুধু আসন ভাগাভাগি নয়, ২০১৯-এর সাধারণ নির্বাচনের রণকৌশল নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হতে পারে তাঁদের মধ্যে। 

সম্প্রতি উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অমিত শাহের পটনা সফরের তাত্পর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন অনেকে। তাদের মতে, লোকসভা নির্বাচনের দামামা বাজতেই নানা ভাবে বিজেপিকে হুমকি দিতে শুরু করেছে জদইউ নেতারা। নিজেদের জোটের 'বড় ভাই' বলে ঘোষণা করে বুঝিয়ে দিয়েছে রাজ্যে জোটের শর্ত ঠিক করবে তারাই। পালটা দিতে ছাড়েননি বিজেপি নেতারাও। জদইউ-র দাবি গত লোকসভা নির্বাচনের ফরমুলা মেনে বিহারের ৪০ আসনের মধ্যে অন্তত ২৫টি তাদের পাওয়া উচিত। না পেলে ৪০টি আসনেই প্রার্থী দেবে তারা। 

তবে দু'দলের নেতাদের এই কোন্দলকে বেশি গুরুত্ব দেননি নীতীশ। তাঁর কথায়, কে বড় ভাই কে ছোট এসব আলোচনা কোনও মানে নেই। নির্বাচনের আগে দু'দলের শীর্ষ নেতারা আলোচনা করে আসন বণ্টন নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। 

 

বলে রাখি, ২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে একা লড়ে বিহারের ৪০টি আসনের মধ্যে মাত্র ২টিতে জিতেছিল বিজেপি। ওদিকে ২২টি আসন দখল করেছিল বিজেপি। বিজেপির জোটসঙ্গী রাষ্ট্রীয় লোক সমতা পার্টি ও লোক জনশক্তি পার্টি পেয়েছিল যথাক্রমে ৩টি ও ৬টি আসন। এদের মধ্যে রাষ্ট্রীয় লোক সমতা পার্টি আগে থেকেই বাড়তি আসনের দাবি জানিয়ে রেখেছে। 

ওদিকে বিহার বিজেপির সভাপতি নিত্যানন্দ রায় বলেন, আসন বণ্টন কোনও বড় ব্যাপার নয়। এনডিএ-র শরিকদের যখন মনের মিলন হয়ে গিয়েছে তখন আসন বণ্টনও হয়ে যাবে। 

শিখরে শেয়ার সূচক, ১১,০০০ ছাড়াল নিফটি

অমিত শাহের সফরের ওপর কড়া নজর রেখেছে বিরোধী শিবিরও। এর মধ্যেই আরএলএসপি নেতা তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী উপেন্দ্র কুশওয়াহাকে বিজেপি বিরোধী মহাজোটে শামিল হওয়ার আবেদন জানিয়ে রেখেছে। আসন বণ্টন নিয়ে এনডিএ-র অন্তর্কলহের দিকে তাকিয়ে রয়েছে কংগ্রেস ও রাজদ। এমনকী লোক জনশক্তি পার্টি ও আরএলএসপি মহাজোটে সামিল হবে বলে ভবিষ্যদ্বাণী করে রেখেছেন রাজদের সহ সভাপতি রঘুবংশ প্রসাদ যাদব। যদিও তা মানতে রাজি নন লোক জনশক্তি পার্টির সুপ্রিম রামবিলাস পাসোয়ান। তবে এনডিএতে পর্যাপ্ত আসন না পেলে যে তারা মহাজোটে ভিড়তে পারেন, তেমন অনুমান করছেন অনেকেই। 

বৃহস্পতিবার বেলা ১০টা নাগাদ পটনা পৌঁছেছেন অমিত শাহ। শুক্রবার সকালে দিল্লি ফেরার কথা তাঁর।  

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close