ধর্ষণ বিরোধী নতুন আইনে সম্মতি মন্ত্রিগোষ্ঠীর

ধর্ষণ বিরোধী নতুন আইনে সম্মতি দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিগোষ্ঠী। নতুন আইনে ১৬ বছরের নিচে সম্মতি ক্রমে সহবাসও ধর্ষণ বলেই পরিগণিত হবে। অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমের নেতৃত্বে মন্ত্রিগষ্ঠী আজ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

Updated: Mar 13, 2013, 08:38 PM IST

ধর্ষণ বিরোধী নতুন আইনে সম্মতি দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিগোষ্ঠী। নতুন আইনে ১৬ বছরের নিচে সম্মতি ক্রমে সহবাসও ধর্ষণ বলেই পরিগণিত হবে। অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরমের নেতৃত্বে মন্ত্রিগষ্ঠী আজ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
বৃহস্পতিবার বিলটি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় পেশ করা হবে। ১৮ তারিখ এই নতুন বিলটি নিয়ে সর্বদলীয় বৈঠকও ডাকা হয়েছে। মহিলাদের সুরক্ষা নিশ্চিতকারী নতুন বিলটির আলোচ্য বিষয়গুলি নিয়ে মন্ত্রীদের মধ্যে দ্বিমত তৈরি হওয়ায় গতকাল সহমত গঠিত হয়নি।
গত ডিসেম্বরে রাজধানীর চলন্ত বাসে ২৩ বছরের তরুণীর গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনার পর দেশ জুড়ে আলোড়নের পর মহিলাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইন সংশোধন করার সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় সরকার।
আইনের সংশোধন প্রসঙ্গে সমাজকর্মী সুনন্দা মুখার্জি বলেন, "এই পরিবর্তনটা জরুরী ছিল। আমার মনে হয় পুরুষরা যতদিন এই ব্যাধি কাটিয়ে উঠতে না পারবে, ততদিন এই সমস্যার সমাধান সম্বব নয়।" দোলন গাঙ্গুলির মত, সম্মতি ক্রমে সহবাসের বয়সসীমা ১৬ করে দেওয়াতে নারী ও পুরুষের যৌন সম্পর্কের অধিকারে হস্তক্ষেপ করা হবে। তিনি আরও বলেন, "এতে এনেক মা বাবাই মেয়েদের স্বাভাবিক সম্পর্কের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনতে পারে।" ফলে সম্মান রক্ষার্থে হত্যার মতো ঘটনা আরও বাড়বে বলেই মনে করেন তিনি। সমাজকর্মী ভারতী মুখার্জি বলেন, "অপ্রাপ্ত বয়স্ক পুরুষরা ধর্ষণে অভিযুক্ত হলে, তাঁদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া উচিৎ।" সংশোধিত আইনে নতুন সংযোজন গুলি ছড়াও আদিবাসী মহিলাদের নিরাপত্তা দেওয়া ও লিঙ্গ নির্ধারণ করার বিষয়টিতে আরও জোর দেওয়ার প্রয়োজন ছিল বলে মনে করেন ভারতী মুখার্জি।