কাঠমাণ্ডুতে নামিয়ে আনা হল বসন্ত সিংহ রায়কে

নেপালের ধৌলাগিরি পর্বত অভিযানে গিয়ে তুষার ঝড়ে আটকে পড়া এভারেস্টজয়ী পর্বতারোহী বসন্ত সিংহরায়কে নিয়ে আসা হল কাঠমান্ডুতে। তাঁকে ভর্তি করা হয়েছে হাসাপাতালে। অন্য পর্বতারোহী দেবাশিস বিশ্বাসকেও বেস ক্যাম্পে নামিয়ে আনা হয়েছে। পর্বতারোহীদের গোটা দলকে কলকাতায় ফিরিয়ে আনতে পরিবারকে নিয়ে আজই কাঠমান্ডু পৌঁছে গিয়েছে ম্যাকের একটি দল। 

Updated: May 25, 2013, 01:37 PM IST

নেপালের ধৌলাগিরি পর্বত অভিযানে গিয়ে তুষার ঝড়ে আটকে পড়া এভারেস্টজয়ী পর্বতারোহী বসন্ত সিংহরায়কে নিয়ে আসা হল কাঠমান্ডুতে। তাঁকে ভর্তি করা হয়েছে হাসাপাতালে। অন্য পর্বতারোহী দেবাশিস বিশ্বাসকেও বেস ক্যাম্পে নামিয়ে আনা হয়েছে। পর্বতারোহীদের গোটা দলকে কলকাতায় ফিরিয়ে আনতে পরিবারকে নিয়ে আজই কাঠমান্ডু পৌঁছে গিয়েছে ম্যাকের একটি দল। 
বিশ্বের সপ্তম উচ্চতম শৃঙ্গ নেপালের ধৌলাগিরি অভিযানে গিয়ে বড় দুর্ঘটনার মুখে পড়েছিলেন এভারেস্টজয়ী বসন্তসিংহরায় ও দেবাশিস বিশ্বাস। দুদিন ধরে তাঁদের কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। গত তেরোই এপ্রিল কলকাতা থেকে রওনা হন বসন্ত সিংহরায়, দেবাশিস বিশ্বাস, মলয় রায়। কাঠমাণ্ডু থেকে তাঁদের সঙ্গে যোগ দেন তিন শেরপা।
গত সোমবার বেস ক্যাম্প থেকে ক্যাম্প টুতে পৌঁছেছিলেন তাঁরা। সেখান থেকে স্যাটেলাইট ফোনে বাড়ির সঙ্গে কথা হয় বসন্ত সিংহরায়ের। বুধবার তাঁরা পৌঁছন ক্যাম্প থ্রিতে। এরপর থেকেই আর যোগাযোগ করা যাচ্ছিল না এভারেস্টজয়ী ওই পর্বতারোহীর সঙ্গে। এই মাসের পাঁচ অথবা ছয় তারিখে শিখরে আরোহনের পরিকল্পনা ছিল তাঁদের। কিন্তু খারাপ আবহাওয়ার কারণে শিখর আরোহণের দিন ক্রমশ পিছিয়ে যায়।
বৃহস্পতিবার এক শেরপাকে সঙ্গে নিয়ে সাড়ে সাত হাজার ফুটের ওপর চার নম্বর ক্যাম্পে পৌঁছন বসন্ত সিংহরায় ও দেবাশিস বিশ্বাস। শুক্রবার শীর্ষ আরোহণের সময়ই প্রবল তুষার ঝড়ে আটকে পড়েছিলেন পর্বতরোহীরা। একটানা তুষার ঝড়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন বসন্ত সিংহরায়। দেবাশিস বিশ্বাসের পায়ে ফ্রস্টবাইট দেখা দেয়।
শুক্রবারই বেস ক্যাম্প থেকে অন্য শেরপারা পর্বতারোহীদের উদ্ধারে ওপরের দিকে রওনা হয়। প্রথমে তাঁদের অবস্থান স্পষ্ট করা যাচ্ছিল না। পরে চার নম্বর ক্যাম্পের কিছু ওপর থেকে উদ্ধার করা হয় বসন্ত সিংহ রায়কে। রাতেই চার নম্বর ক্যাম্প থেকে তাঁকে নিয়ে নিচের দিকে নামতে শুরু করেন শেরপারা। শনিবার দুপুরে বসন্ত সিংহরায়কে বেসক্যাম্পে নামিয়ে আনা হয়। সেখান হেলিকপ্টারে নিয়ে আসা হয় কাঠমান্ডুতে। সেখানকার হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন রয়েছেন এভারেস্টজয়ী এই পর্বতারোহী।