বিহারে বনধ, সংঘর্ষে বিজেপি-জেডি(ইউ)

বিজেপির ডাকা ধর্মঘটকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে উত্তাল হল বিহার। রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বিজেপি ও জেডিইউ সমর্থকদের সংঘর্ষে উত্তেজনা ছড়ায়। বনধের প্রভাব পড়েছে রাজধানী পাটনার জনজীবনে। দোকান পাট খোলেনি। পরিবহণ ব্যবস্থাও ছিল বিপর্যস্ত। জায়গায় জায়গায় রেল অবরোধ করেন বিজেপি সমর্থকরা। যদিও, ব্যাঙ্ক সহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান খোলা ছিল। পাটনায় ধর্মঘট ব্যর্থ করতে প্রচুর নিরাপত্তারক্ষী মোতায়েন করা হয়। মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের শহর নালন্দাতেও বনধ ঘিরে সংঘর্ষের খবর পাওয়া গিয়েছে। বনধে অশান্তির জন্য জেডিইউকেই দায়ী করেছে বিজেপি।    

Updated: Jun 18, 2013, 03:01 PM IST

বিজেপির ডাকা ধর্মঘটকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে উত্তাল হল বিহার। রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বিজেপি ও জেডিইউ সমর্থকদের সংঘর্ষে উত্তেজনা ছড়ায়। বনধের প্রভাব পড়েছে রাজধানী পাটনার জনজীবনে। দোকান পাট খোলেনি। পরিবহণ ব্যবস্থাও ছিল বিপর্যস্ত। জায়গায় জায়গায় রেল অবরোধ করেন বিজেপি সমর্থকরা। যদিও, ব্যাঙ্ক সহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান খোলা ছিল। পাটনায় ধর্মঘট ব্যর্থ করতে প্রচুর নিরাপত্তারক্ষী মোতায়েন করা হয়। মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের শহর নালন্দাতেও বনধ ঘিরে সংঘর্ষের খবর পাওয়া গিয়েছে। বনধে অশান্তির জন্য জেডিইউকেই দায়ী করেছে বিজেপি।    
জেডি(ইউ) বিজেপির সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙার দু`দিনের মাথায় বিহারে খণ্ডযুদ্ধে জড়িয়ে পরল দু`দলের সমর্থকরা। সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে। বেশ কয়েকটি জায়গায় ট্রেন অবরোধের খবর মিলেছে।
সকাল ১০ টায় বীরচান্দ প্যাটেল মার্গের কাছে বিজেপির ডাকা বনধের প্রতিবাদে রাস্তায় নামে জেডি(ইউ) সমর্থকেরা। সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে সেখেনে। এই বীরচন্দ মার্গেই রাজ্যে প্রধান রাজনৈতিক দলগুলির কার্যালয়। সংঘর্ষে জেডি(ইউ) নেতা রাজীব রঞ্জন সহ একাধিক কর্মী আহত হয়েছেন।