শিশু মৃত্যুর জের: খাবার চেখে দেখতে হবে প্রধানশিক্ষক, রাঁধুনিকে

Last Updated: Thursday, July 18, 2013 - 10:14

ছাপড়ায় মিড ডে মিল খেয়ে ২২শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় বিরোধীদের তীব্র সমালোচনায় বিদ্ধ হচ্ছেন মুখমন্ত্রী নীতীশ কুমার। এবার সমালোচনার জবাব দিতে স্কুল গুলিতে নতুন নিয়ম জারি করতে উদ্যোগী হল তাঁর সরকার। সরকারি ভাবে সংবাদপত্র গুলিতে বিজ্ঞাপন দিয়ে জানানো হল স্কুলে তৈরি মিড ডে মিল প্রথমে স্কুল অধ্যক্ষ ও রাঁধুনিকে চেখে দেখতে হবে। খাবার পরীক্ষা করে দেখতে হবে দায়িত্ব থাকা সংশ্লিষ্ট আধিকারিককেও। রাখতে হবে খাবারের গুণগত মাণের নিয়মিত রেকর্ড।
তবে এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিস। স্কুলটির প্রধানশিক্ষিকা ফেরার।

স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে জানানো হয়েছে, সারানের ধর্মসতী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এই ঘটনাটি ঘটেছে। দুপুরে স্কুলের খাবার খাওয়ার পরই শিশুরা অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাদের সকলেরই বয়স ৮ থেকে ১২ এর মধ্যে। পুলিস জানিয়েছে, খাবারে ভাত আর সোয়াবিন ছিল। স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা মীনা দেবী ও অন্যান্য শিক্ষকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে।
খাদ্যে বিষক্রিয়ার ফলেই ২২ জন শিশুর প্রাণ গেল বলে জানিয়েছেন শিক্ষা বিভাগের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি অমরজিৎ সিনহা।
শিশু মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই বাসিন্দারা স্থানীয় থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। তাঁদের দাবি অবিলম্বে সংশ্লিষ্ট স্কুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। বিভিন্ন জায়গায় মানুষ রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ দেখান। বেশকিছু জায়গায় চলে ভাঙচুড়। বুধবার সারানে বনধের ডাক দিয়েছে বিজেপি ও আরজেডি। নৈতিক বিচারে মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের পদত্যাগ দাবি করেছে বিজেপি।
মুখ্যমন্ত্রী নীতীশকুমার ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। মৃত শিশুদের পরিবার পিছু দু লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্য ঘোষণা করেছেন। প্রাক্তন জোটসঙ্গী বিজেপি বিষয়টি নিয়ে নীতীশকুমারকে চেপে ধরতে ময়দানে নেমে পড়েছে। তাদের অভিযোগ, লালুপ্রসাদের জমানাতেও এরকম ঘটেনি। নীতীশকুমার সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়েছেন লালুপ্রসাদ যাদবও।



First Published: Thursday, July 18, 2013 - 10:15


comments powered by Disqus