হায়দরাবাদে ধারাবাহিক বিস্ফোরণে কমপক্ষে হত ১৬

Last Updated: Thursday, February 21, 2013 - 19:38

ফের সন্ত্রাসবাদী হামলার শিকার হল ভারত। হায়দরবাদে ব্যস্ত দিলসুখনগরের
জনবহুল এলাকায় সন্ধে সাতটা নাগাদ পরপর দুটি বিস্ফোরণে কমপক্ষে ১২ জনের
মৃত্যু হয়েছে বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে। গুরুতর আহত অন্তত
৭৮ জন। তবে অসমর্থিত সূত্রের খবর মারা গিয়েছেন অন্তত ১৫ জন। হতাহতের সংখ্যা
বাড়বে বলে আশঙ্কা
করা হচ্ছে। সূত্রের খবর কোনার্ক থিয়েটার,  ভেঙ্কাটাদ্রি থিয়েটারের বাইরে
সাইকেল ও একটি বাইকের মধ্যে অত্যন্ত শক্তিশালী বোমা দুটি
রাখা ছিল। এটি জঙ্গি হামলা
বলে স্বীকার করেছে কেন্দ্র।
দেখুন এই বিস্ফোরণের ভয়াবহ ভিডিও (অসম্পাদিত ভিডিও)
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক থেকে অবশ্য দুটি বিস্ফোরণের কথা বলা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত সরকারি ভাবে নিহতের সংখ্যা ১১। আহত ৫০। গোটা ঘটনায় সন্দেহের তির ইন্ডিয়ান মুজাহিদিনের দিকে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রের খবর অনুযায়ী আফজল গুরুর ফাঁসির পাল্টা হিসাবে এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে।
সূত্রের খবর এনআইএ সূত্রে তিনদিন আগেই এই বিস্ফোরণের আশঙ্কার খবর পাওয়া গিয়েছিল।
কেন্দ্রীয়স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক ইতিমধ্যেই জরুরী বৈঠকে বসেছে। ফের জঙ্গি নাশকতার আশঙ্কায় গোটা হায়দরাবাদ সহ দেশের বড় শহর গুলিতে চরম সতর্কতা জারি করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কিরণ  রেড্ডি। 'বোম্বডিসপোজাল স্কোয়াড' পৌঁছে গেছে বিস্ফোরণস্থলে। 
ঘটনাস্থল ঘিরে ফেলেছে পুলিশ। উদ্ধারকারী দল ও স্থানীয়রা জখমদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছেন। এলাকাজুড়ে রয়েছে চরম আতঙ্ক ও উত্তেজনা। গুজব ছড়ানোর ভয়ে ওই এলাকার সব মোবাইল কানেকশন জ্যাম করে দেওয়া হয়েছে।
হায়দরাবাদে এই বিস্ফোরণের জেরে গোটা অন্ধপ্রদেশজুড়ে চরম সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে।  দেশের সব বড় শহরে সতর্কতাবার্তা জারি করেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। সতর্কতা জারি করা হয়েছে কলকাতাতেও।

গোয়েন্দাদের অনুমান, হতাহতের সংখ্যা বাড়ানোর লক্ষ্যেই  জনবহুল এলাকা এবং সন্ধের সময়কেই বেছে নিয়েছে সন্ত্রাসবাদীরা। বিস্ফোরণের খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই জরুরি বৈঠকে বসে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। কেন্দ্রের আশঙ্কা, আফজল গুরুর মৃত্যুর বদলা নিতেই এই হামলা ।  সাইকেল ও মোটর সাইকেলে রাখা শক্তিশালী বিস্ফোরক থেকে বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গিরা। বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থলে যান অন্ধ্রের মুখ্যমন্ত্রী। ঘটনাস্থলে পৌছায় ফরেনসিক দল।
বিস্ফোরণের পর গোটা অন্ধ্রে সতর্কতা জারি হয়েছে। মোবাইল নেটওয়ার্ক জ্যাম করে দেওয়া হয়। সতর্কতা জারি হয়েছে দেশের  সব বড় শহরে। হায়দরাবাদ রওনা দিয়েছে এনএসজি কমান্ডোর একটি দল ও  এনআইএর বম্ব ডিসপোজাল স্কোয়াড। তৈরি থাকতে বলা হয়েছে সেনাবাহিনীকে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অনুমান, ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন এই বিস্ফোরণের পিছনে থাকতে পারে। দুদিন আগেই ইন্ডিয়ান মুজাহিদিনের সম্ভাব্য হামলার বিষয়ে সতর্ক করেছিল এনআইএ। 

ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে এনআইএ-র একটি দল৷ এনএসজি-ও ঘটনাস্থলের উদ্দেশে রওনা
দিয়েছে৷ বিস্ফোরণের তীব্র নিন্দা করেছেন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ৷তিনি
বিস্ফোরণে নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা ও আহতদের মাথাপিছু ৫০
হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা জানিয়েছেন।

কিন্তু এই প্রথম নয়, অতীতেও বার বার জঙ্গি হানায় রক্তে লাল হয়েছে হায়দরাবাদের মাটি৷ নিজামের শহরে ধারাবাহিক বিস্ফোরণে প্রাণ গিয়েছে বহু নিরীহ মানুষের৷ প্রতিটি ক্ষেত্রেই জঙ্গিরা বেছে নিয়েছে শহরের জনবহুল এলাকাকে এবং এমন সময়কে যখন বিস্ফোরণ ঘটালে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মানুষের মৃত্যু হবে৷ প্রতিবারই টার্গেট ছিল ব্যস্ত শহরের জনবহুল এলাকা৷ কখনও সিনেমা হল, ধর্মীয় স্থান, বাস স্ট্যান্ড, কখনও মামুলি ডাস্টবিনে রাখা বোমা ফেটে মর্মান্তিক, ভয়াবহ ঘটনা ঘটেছে৷



First Published: Friday, February 22, 2013 - 15:33


comments powered by Disqus