বিজয় সিংলা জানতেন তল্লাসির কথা, দাবি সিবিআই আধিকারিকের

Last Updated: Monday, May 20, 2013 - 12:50

এতদিন সিবিআইয়ের তদন্তে কেন্দ্রীয় হস্তক্ষেপ নিয়ে বিস্তর বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। এবার সিবিআইয়ের অন্দরেই তদন্ত প্রভাবিত করার চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠল। এক সিবিআই আধিকারিক অভিযোগ আনলেন তাঁর উচ্চতর অফিসারের বিরুদ্ধে। ইন্সপেক্টর বলবীর সিং জানিয়েছেন রেল ঘুষ কাণ্ডের দু`টি তদন্তকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছেন তাঁর সিনিয়ার অফিসার। দুটি তদন্তই প্রাক্তন রেল মন্ত্রী পবন কুমার বনশলের ভাগ্নে সম্পর্কিত।
কেন্দ্রীয় প্রশাসনিক ট্রাইবুনালে একটি হলফনামা পেশ করে বলবীর সিং চন্ডিগড়ের সিবিআইয়ের ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল মহেশ আগরওয়ালের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন। সূত্রে খবর, মহেশ আগরওয়ালের সঙ্গে পবন কুমার বনশলের পারিবারিক সম্পর্ক রয়েছে।
বলবীর সিং অভিযোগ করেছেন বনশলের ভাগ্নে বিজয় সিংলার বাড়িতে সিবিআই তল্লাসির পরিকল্পনা আগে থেকেই তাঁর পরিবারের কাছে পৌঁছে দিয়েছিলেন আগরওয়াল। শুধু তাই নয় ইচ্ছাকৃত ভাবেই এই তল্লাসিতে দেরি করানোর চেষ্টা হয়েছিল যাতে বিজয় সিংলা প্রমাণ লোপাট করার যথেষ্ট সময় পায়।
গত ১৫মে পেশ করা এই হলফনামাতে তিনি বলবীর সিং অভিযোগ করেছেন পৃথক একটি দুর্নীতির ঘটনায় বনসল ঘনিষ্ট রাজীব গুপ্তর বিরুদ্ধে তদন্তকেও প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছিলেন মহেশ আগরওয়াল।
বলবীর সিংয়ের কথা অনুযায়ী তিনি আগরওয়ালের কথা মত কাজ করতে না চাওয়ায় তাঁকে ভোপালে বদলি করে দেওয়া হয়। তিনি এই বদলির আদেশকে চ্যালেঞ্জ করলে সিএটি তাঁর বদলির উপর স্থগিতাদেশ জারি করে।
লক্ষ্যনীয় ভাবে গত সপ্তাহে সিবিআইয়ের পক্ষ থেকে স্বতঃপ্রণোদিত একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। এই বিজ্ঞপ্তিতে সিবিআইয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয় রেল ঘুষ কাণ্ডে তথ্য ফাঁস করার অভিযোগে চন্ডিগড়ে তাদের কোনও আধিকারিকদের বিরুদ্ধে কোনও রকম অভ্যন্তরীণ তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়নি।
সিবিআইয়ের এই বিজ্ঞপ্তির এক সপ্তাহের মধ্যে বলবীর সিংয়ের হলফনামা প্রকাশ্যে এসে যাওয়ায় ওই বিজ্ঞপ্তি নিয়েও প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।



First Published: Monday, May 20, 2013 - 12:50


comments powered by Disqus