সংখ্যা নিয়ে উদ্বেগে কেন্দ্র

Last Updated: Friday, November 23, 2012 - 15:44

এফডিআই ইস্যুতে বিরোধীদের দাবি মেনে ১৮৪ ধারায় আলোচনায় কী রাজি হতে পারে সরকার? এই নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা। সূত্রের খবর সংখ্যার সঙ্কট কাটাতে তোড়জোড় শুরু করেছে কংগ্রেস। শরিক ডিএমকে সরকারের পাশেই রয়েছে বলেই খবর। কংগ্রেস যোগাযোগ রাখছে ছোট দলগুলির সঙ্গে। এক্ষেত্রে বিএসপি এবং এসপি-র ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
কংগ্রেস চাইছে এফডিআই নিয়ে সপা বা বসপার সমর্থন আদায় করতে। তা যদি নিতান্তই না হয় তাহলে সপা, বসপা যাতে ভোটদানে বিরত থাকে, তা নিশ্চিত করতে। সেক্ষেত্রে ১৮৪ ধারায় ভোটাভুটি হলেও সংখ্যা নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকবে না সরকারের।
আগামী সোমবার পর্যন্ত মুলতুবি শীতকালীন অধিবেশন। বেলা আড়াইটে পর্যন্ত মুলতুবি রাখা হল রাজ্যসভা।
শুক্রবার অধিবেশনের দ্বিতীয় দিনের শুরুতেই এফডিআই ইস্যুতে ১৮৪ ধারায় ভোটাভুটি সহ আলোচনার দাবি জানাতে থাকেন বিরোধীরা। উত্তাল হয়ে ওঠে সংসদ। প্রথমে বেল ১২টা পর্যন্ত মুলতুবি হয়ে যায় সংসদ। ফের অধিবেশন শুরু হলে ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত মুলতুবি রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
গতকাল এফডিআই ইস্যুতে উত্তাল হয়ে ওঠে সংসদের উভয়কক্ষ। বিরোধীদের তুমুল হৈহট্টগোলের জেরে বেলা ১২টা মুলতুবি করা হয়েছে সংসদের ঊভয় কক্ষের অধিবেশন। বিরোধীরা বারবারই ১৮৪ ধারায় আলোচনার দাবি জানাতে থাকেন। এফডিআই, পেনশন বিল, জ্বালানি ও দ্রব্যমূল্যবৃদ্ধি সহ একাধিক ইস্যুতে কেন্দ্রকে কোণঠাসা করতে তৈরি ছিল বিরোধী শিবির।  লোকসভার স্পিকার মীরা কুমারের ডাকা সর্বদল বৈঠকেও এফডিআই নিয়ে জট কাটেনি। তার উপর রাজ্যসভায় বহু বিতর্কিত লোকপাল বিল নিয়ে রিপোর্ট পেশ করা হবে। যা নিয়েও হট্টগোলের সম্ভাবনা রয়েই যাচ্ছে।
এফডিআই ইস্যুতে গতকালই লোকসভায় অনাস্থা প্রস্তাব আনে তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু প্রয়োজনীয় সংখ্যা না থাকায় তৃণমূলের আনা অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ করে দেন স্পিকার মীরা কুমার।



First Published: Friday, November 23, 2012 - 17:28


comments powered by Disqus