দেশে ৩ হাজার কোটি টাকার ‘শত্রু সম্পত্তি’ বিক্রি করবে সরকার, জানিয়ে দিলেন রবিশঙ্কর প্রসাদ

১৯৬৮ সালে পাস হয় শত্রু সম্পত্তি আইন। কিন্তু ওই আইনকে চ্যালেঞ্জ করে আদালতে যান রাজা মেহমুদাবাদের বংশধররা

Updated: Nov 9, 2018, 10:13 AM IST
দেশে ৩ হাজার কোটি টাকার ‘শত্রু সম্পত্তি’ বিক্রি করবে সরকার, জানিয়ে দিলেন রবিশঙ্কর প্রসাদ

নিজস্ব প্রতিবেদন: দেশভাগের আগে ও পরে বহু মানুষ পাকিস্তান বা চিনে চলে গিয়েছেন। দেশে ছড়িয়েছিটিয়ে থাকা ওইসব ‘শত্রু সম্পত্তি’ এবার বিক্রি শুরু করছে কেন্দ্র। বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর ওই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ।

আরও পড়ুন-দেশের ৬ বিমানবন্দর লিজ দিচ্ছে কেন্দ্র, সবুজ সংকেত দিল মন্ত্রিসভা

এনডিএ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বিদেশি নাগরিকদের সম্পত্তি বিক্রি করে দেওয়ার কথা উঠছিল বারবারই। বর্তমানে ওইসব সম্পত্তির বাজারমূল্য কমপক্ষে ৩০০০ কোটি টাকা। ওইসব সম্পত্তি বিক্রির জন্য আইন সংশোধনও করেছে সরকার। আইন অনুযায়ী দেশভাগের আগে ও পরে এদেশ ছেড়ে যারা চলে গিয়েছেন সেইসব সম্পত্তির মালিক এখন সরকার।

রবিশঙ্কর প্রসাদ জানিয়েছেন, দেশে ৯৯৬টি বেসরকারি কোম্পানির অধীনে রয়েছে ওইসব সম্পত্তি। এর মোট মূল্য ৩০০০ কোটি। ওই টাকা থেকে সরকার তা দেশের সড়ক তৈরি, বিদ্যুত উতপাদন সহ অন্যান্য কাজ করবে।

আরও পড়ুন-মারধরের পর মৃত ভেবে অটোচালককে রাস্তায় ফেলে পালাল দুষ্কৃতীরা!

বিভিন্ন ক্ষেত্র থেকে ৮০০০০ কোটি টাকা আয় করার লক্ষ্যমাত্র ধার্য করেছে কেন্দ্র। এর মধ্যে গত সাত মাসে সরকার মাত্র ১০,০০০ কোটি টাকা তুলতে পেরেছে। ফলে ওই টার্গেট পূরণ করার জন্য এখন বিভিন্ন সম্পত্তি বিক্রি করে তা আয় করার লক্ষ্যমাত্র ঠিক করেছে সরকার, এমনটাই মনে করছে নানা মহল।

উল্লেখ্য, পাঁচবার অর্ডিন্যান্স জারির পর গত বছর ১৫ মার্চ শত্রু সম্পত্তি আইন পাস করে কেন্দ্র। ১৯৬৫ সালে ভারত-পাক যুদ্ধের পর এই শত্রু সম্পত্তি আইনের ভাবনা শুরু হয়। ১৯৬৮ সালে পাস হয় শত্রু সম্পত্তি আইন। কিন্তু ওই আইনকে চ্যালেঞ্জ করে আদালতে যান রাজা মেহমুদাবাদের বংশধররা। ওই আবেদনের কথা মাথায় রেখে আইন সংশোধনও করা হয়।

 

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close