প্রধানমন্ত্রীকে অশিক্ষিত-অভদ্র বলে কটাক্ষ কংগ্রেস নেতা সঞ্জয় নিরুপমের

নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে একটি ছবি মহারাষ্ট্রের স্কুল-কলেজের পড়ুয়াদের মধ্যে প্রদর্শনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফড়ণবীস সরকার। 

Updated: Sep 12, 2018, 10:52 PM IST
প্রধানমন্ত্রীকে অশিক্ষিত-অভদ্র বলে কটাক্ষ কংগ্রেস নেতা সঞ্জয় নিরুপমের

নিজস্ব প্রতিবেদন: মোদী সরকারকে বিঁধতে গিয়ে বিভিন্ন সময়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন সঞ্জয় নিরুপম। বিভিন্ন সময়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন এই কংগ্রেস নেতা। বুধবার নরেন্দ্র মোদী 'অশিক্ষিত-অভদ্র' বলে কটাক্ষ করলেন মুম্বই কংগ্রেসের প্রদেশ সভাপতি সঞ্জয় নিরুপম।

নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে একটি ছবি মহারাষ্ট্রের স্কুল-কলেজের পড়ুয়াদের মধ্যে প্রদর্শনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফড়ণবীস সরকার। মহারাষ্ট্র সরকারের এই সিদ্ধান্ত নিয়েই মোদীকে বিঁধলেন সঞ্জয় নিরুপম। তাঁর কথায়,''মোদীকে নিয়ে ছবি জোর করে প্রদর্শন করা হচ্ছে। এটা একবারেই অনুচিত। রাজনীতি থেকে ছেলেমেয়েদের দূরে রাখা দরকার।''। এরপরই মুম্বইয়ের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বলেন,''নরেন্দ্র মোদীর ব্যাপারে জেনে স্কুল-কলেজের পড়ুয়াদের কোনও লাভ হবে না। ওনার শিক্ষাগত যোগ্যতার ব্যাপারে জানেন না দেশের নাগরিক ও ছেলেমেয়েরা। উনি অশিক্ষিত-অভদ্র''।

নোট বাতিলের পর প্রধানমন্ত্রীকে হত্যাকারী বলেছিলেন সঞ্জয় নিরুপম। তিনি অভিযোগ করেছিলেন, নোটবন্দির সিদ্ধান্ত নিয়ে ৭০জনকে হত্যা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বলেছিলেন, ''সব মৃত্যুর জন্য দায়ী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁকে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭০ ধারায় গ্রেফতার করা হোক''। আরও বলেছিলেন,''এই মানুষগুলো টাকা জমা ও তোলার জন্য কয়েকদিন ধরে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন। নিজেদের টাকাই ব্যাঙ্ক থেকে তুলতে পারেননি। ৭০ জনেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এর জন্য দায়ী প্রধানমন্ত্রী''। 

সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের সত্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছিলেন সঞ্জয় নিরুপম। এমনকি প্রধানমন্ত্রীকে মাওবাদীদের প্রাণনাশের হুমকি নিয়েও কটাক্ষ করেছিলেন নিরুপম। বলেছিলেন,''এটা প্রধানমন্ত্রীর পুরনো কৌশল। তাঁর জনপ্রিয়তা পড়তি হলেই হত্যার ছক প্রকাশ্যে আসে''।           

গুজরাটের নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রীকে 'নীচ আদমি' বলে নিশানা করেছিলেন মণিশঙ্কর আইয়ার। তার আগে ২০০৪ সালের লোকসভা ভোটের আগে মোদীকে 'চাওয়ালা' বলে তাচ্ছিল্য করেছিলেন এই কংগ্রেস নেতা। গুজরাটে মণিশঙ্করের 'নীচ' মন্তব্যকে হাতিয়ার করে প্রচারে ঝড় তুলেছিলেন নরেন্দ্র মোদী। পরিস্থিতি সামাল দিতে মণিশঙ্করকে সাসপেন্ড করে কংগ্রেস। পরে তাঁর সাসপেনশন প্রত্যাহার করা হয়। 

আরও পড়ুন- মালিয়াকে ভারতে প্রত্যর্পণের সিদ্ধান্ত ১০ ডিসেম্বর, জানাল ব্রিটেনের আদালত

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close