আদালতে ধাক্কা অখিলেশের

আদালতে বড়সড় ধাক্কা খেল অখিলেশ যাববের সমাজবাদী পার্টি সরকার। ২০০৭-এর গোরখপুর বিস্ফোরণ মামালায় অভিযুক্ত তারিক কুয়াসমি ও খালিদ মুজাহিদের বিরুদ্ধে মামলা তুলে নেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছিল উত্তরপ্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে। আজ সেই আবেদন খারিজ করেদিল বারাবাঁকির একটি আদালত। প্রসঙ্গত, অভিযুক্ত দু`জন হুজির জঙ্গি বলে অনুমান।

Updated: May 10, 2013, 04:36 PM IST

আদালতে বড়সড় ধাক্কা খেল অখিলেশ যাববের সমাজবাদী পার্টি সরকার। ২০০৭-এর গোরখপুর বিস্ফোরণ মামালায় অভিযুক্ত তারিক কুয়াসমি ও খালিদ মুজাহিদের বিরুদ্ধে মামলা তুলে নেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছিল উত্তরপ্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে। আজ সেই আবেদন খারিজ করেদিল বারাবাঁকির একটি আদালত। প্রসঙ্গত, অভিযুক্ত দু`জন হুজির জঙ্গি বলে অনুমান।
উত্তরপ্রদেশ সরকার আদালতে জানিয়েছিল জনস্বার্থে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখার জন্যই তারা এই মামলা তুলে নিতে চাইছে। কিন্তু আদালতে এই দুই দাবির যথার্থ ব্যাখা দিতে ব্যর্থ সরকার।
২০১৪-এর নির্বাচনকে মাথায় রেখে এই দুই হুজি জঙ্গির মুক্তির দাবিকে নিজেদের রাজনৈতিক কৌশল হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করতে চেয়েছিলেন অখিলেশ যাদব। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নামে মুলায়ম পুত্র সংখ্যালঘু তাস খেলে ভোট ব্যাঙ্ক শক্তিশালী করতে চেয়েছিলেন বলে অনুমান বিশেষজ্ঞ মহলের। এর ফলে বহু সমালোচনার সম্মুখীন হতে হলেও নিজেদের অবস্থান থেকে সরে আসেননি অখিলেশ।
২০০৭-এ উত্তরপ্রদেশের গোলঘরে একটি সাইকেলে রাখা বোম বিস্ফোরণে গুরুতর আহত হয়েছিলেন ছ`জন। উত্তরপ্রদেশ পুলিসের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স বারাবাঁকি স্টেশন থেকে বিস্ফোরক সহ অভিযুক্ত দু`জন গ্রেফতার করে।
২০১২তে বিধানসভা নির্বাচনে সমাজবাদী পার্টি তাদের নির্বাচনী ইস্তেহারে রামপুরের হামলা, ফাইজাবাদ, বারবাঁকি, লখনউয়ের সিরিয়াল বিস্ফোরণে সহ বারাণসী ও গোরখপুরের বিস্ফোরণে অভিযুক্ত ``নিষ্পাপ`` যুবকদের বিরুদ্ধে যত মামলা চলছে তার পুনর্বিবেচনার আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল। ক্ষমতায় আসার পর বিভিন্ন মুসলিম সংগঠনগুলি অখিলেশের উপর ক্রমাগত প্রতিশ্রুতি পালনের জন্য চাপ দিয়ে যাচ্ছিল।