দেশে কমছে অপরাধ, দাবি এনসিআরবি রিপোর্টে

দেশে অপরাধের সংখ্যা কমছে! শুনতে অবাক লাগলেও তথ্য-পরিসংখ্যান কিন্তু এমনই বলছে। ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে গত বছর সারা দেশে নথিভুক্ত অপরাধের সংখ্যা ৭.৪ শতাংশ কমেছে।

Updated: Jul 10, 2012, 10:20 AM IST

দেশে অপরাধের সংখ্যা কমছে! শুনতে অবাক লাগলেও তথ্য-পরিসংখ্যান কিন্তু এমনই বলছে। ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো(এনসিআরবি) পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে গত বছর সারা দেশে নথিভুক্ত অপরাধের সংখ্যা ৭.৪ শতাংশ কমেছে।
বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিতে অপরাধের সাম্প্রতিকতম খতিয়ান প্রকাশ করেছে ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো(এনসিআরবি)। আর সেই পরিসংখ্যান ঘেঁটে দেখা যাচ্ছে, ২০১০-এর তুলনায় ২০১১-তে সারা দেশে নথিভুক্ত অপরাধের সংখ্যা কমেছে। ভারতীয় দণ্ডবিধি ও স্থানীয় আইনের ভিত্তিতে গত বছর যে সব রাজ্যে অপরাধের সংখ্যা কমেছে তাদের মধ্যে উত্তরপ্রদেশে, অন্ধ্রপ্রদেশের মতো জনবহুল রাজ্যও রয়েছে।
পরিসংখ্যান বলছে, ২০১০-এর তুলনায় ২০১১-এ উত্তরাখণ্ডে সবচেয়ে বেশি ৪৮.৬১ শতাংশ কমেছে নথিভুক্ত অপরাধের সংখ্যা। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ। এই রাজ্যে অপরাধের সংখ্যা ৪৪.২২ শতাংশ কমেছে। এর পরে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ। সেখানে অপরাধের সংখ্যা কমেছে ৮.৮২ শতাংশ। ঝাড়খণ্ডে গত বছর নথিভুক্ত অপরাধের সংখ্যা ৭.৭৪ শতাংশ কমেছে। পঞ্জাবে অপরাধ কমেছে ৬.৭২ শতাংশ।

এনসিআরবি-র পেশ করা তথ্য অনুযায়ী বিভিন্ন রাজ্যে সুয়ো মোটো বা পুলিসের স্বতঃপ্রণোদিতভাবে মামলা রুজু করার সংখ্যাও বেড়েছে। ২০১০-এর তুলনায় ২০১১-এ উত্তরপ্রদেশ পুলিসের সুয়ো মোটো অভিযোগের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ২,৩২,০৫৬টি বেড়েছে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ। এই রাজ্যে সুয়ো মোটো অভিযোগের সংখ্যা ১,২৯,৬১৫টি বেড়েছে। এর পরে রয়েছে উত্তরাখণ্ড। সেখানে পুলিসের স্বতঃপ্রণোদিত অভিযোগের সংখ্যা বেড়েছে ২৭,৮০৯টি।
তামিলনাড়ুতে গত বছর সুয়ো মোটো অভিযোগের সংখ্যা ২০,৬১৫টি বেড়েছে। মধ্যপ্রদেশে ২০১০-এ কোনও সুয়ো মোটো মামলা রুজু করা হয়নি। গত বছর এই রাজ্যে পুলিসের সুয়ো মোটো অভিযোগের সংখ্যা ১৯,৪৬২। আইনশৃঙ্খলার বিষয়টি রয়েছে ভারতীয় সংবিধানের রাজ্য তালিকায়। ফলে, অপরাধের সংখ্যা কমার কৃতিত্ব রাজ্য সরকারগুলি দাবি করতে পারে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।