দিল্লি গণধর্ষণ কাণ্ড সরকারের ভাবতে বাধ্য করেছে, জানালেন প্রধানমন্ত্রী

Last Updated: Sunday, April 7, 2013 - 11:51

বিচার ব্যবস্থার সংস্কার নিয়ে দিল্লির বিজ্ঞানভবনে মুখ্যমন্ত্রী ও বিচারপতিদের সম্মেলনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। উপস্থিত আছেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধানবিচারপতি আলতামাস কবির। প্রধানমন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে জানালেন মানবধিকার রক্ষার দায়িত্ব রাজ্যের। তাঁর বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন ``বর্তমান সময় নতুন ভাবে বিচার ব্যবস্থা গঠনের দাবি করছে। এই সময় লক্ষ্য রাখতে হবে যাতে কোনও ভাবেই ন্যায় বিচার যেন অবহেলিত না হয়।`` তবে এর সঙ্গেই প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন সারা দেশ জুড়েই মামলার পাহাড় জমে রয়েছে। কিন্তু সেই তুলনায় বিচারপতিদের সংখ্যা নগণ্য, মামলার দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য প্রয়োজন বেশি সংখ্যক বিচারপতি নিয়োগ।
আজকে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে ফের একবার উঠে এল দিল্লি গণধর্ষণ কাণ্ড। স্বীকার করে নিলেন দিল্লি গণধর্ষণ কাণ্ডের পর সারা দেশ জুড়ে যে প্রতিবাদ সংগঠিত হয়েছিল তা সরকারকে নতুন ভাবে ভাবতে বাধ্য করেছে। এই ঘটনায় সরকারের দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ ও ফাস্টট্র্যাক কোর্ট গঠন করার ঘটনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তবে স্বীকার করে নিলেন নারী নিরপত্তা সুনিশ্চিত করতে এখনও অনেক কিছুই করা বাকি। তার জন্য সব থেকে আগে লিঙ্গ বৈষম্য দূর করার প্রয়োজনীয়তা মেনে নিলেন মনমোহন সিং। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি আলতামাস কবীরের সঙ্গে সহমত পোষণ করে তিনি জানিয়েছেন সারা দেশ জুড়েই মামলার পাহাড় জমে রয়েছে। কিন্তু সেই তুলনায় বিচারপতিদের সংখ্যা নগণ্য, মামলার দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য প্রয়োজন বেশি সংখ্যক বিচারপতি নিয়োগ। বিচার ব্যবস্থার সার্বিক গঠন ব্যবস্থার উন্নতিকল্পে রাজ্যগুলির সহযোগিতা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন তিনি।



First Published: Sunday, April 7, 2013 - 11:51


comments powered by Disqus