কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা দিবসেও দিল্লি গণধর্ষণের ছায়া

কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা দিবসে দিল্লি গণধর্ষণ কাণ্ডের নিন্দা করলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী ও প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। সিঙ্গাপুরের হাসপাতালে চিকিত্‍সারত তরুণীর আরোগ্য কামনা করেন কংগ্রেস সভানেত্রী। প্রধানমন্ত্রী বলেন, চলন্ত বাসে গণধর্ষণের ঘটনায় দেশজুড়ে তৈরি হওয়া ক্ষোভের শরিক সরকারও। দোষীদের দ্রুত বিচারের আশ্বাস দেন তিনি। কংগ্রেসের ১২৭তম প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষ্যে আজ এআইসিসি-র সদর দফতরে যান সোনিয়া-মনমোহন।

Updated: Dec 28, 2012, 12:32 PM IST

কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠা দিবসে দিল্লি গণধর্ষণ কাণ্ডের নিন্দা করলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী ও প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। সিঙ্গাপুরের হাসপাতালে চিকিত্‍সারত তরুণীর আরোগ্য কামনা করেন কংগ্রেস সভানেত্রী। প্রধানমন্ত্রী বলেন, চলন্ত বাসে গণধর্ষণের ঘটনায় দেশজুড়ে তৈরি হওয়া ক্ষোভের শরিক সরকারও। দোষীদের দ্রুত বিচারের আশ্বাস দেন তিনি। কংগ্রেসের ১২৭তম প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষ্যে আজ এআইসিসি-র সদর দফতরে যান সোনিয়া-মনমোহন।
ডিসেম্বর ১৬-র রাতে বেসরকারি বাসে গণধর্ষণের শিকার ২৩ বছরের প্যারামেডিকস ছাত্রীর সাহসকে কুর্নিশ জানিয়ে ক্কংগ্রেস সভানেত্রী বলেন, "আমি আশা করি ও তাড়াতাড়ি সেরে উঠে ফিরে আসবে।" এই ঘটনায় দোষীদের অবিলম্বে কঠোরতম শাস্তির আশ্বাস দেন তিনি।
একই সুর শোনা যায় প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং-এর গলায়। তিনি বলেন দোষীদের শাস্তি দিতে সরকার দায়বদ্ধ।
দিল্লির সফদরজঙ্গ হাসপাতালে শারীরিক পরিস্থিতির অত্যন্ত দ্রুত অবনতি হওয়ায়, গত পরশুই নির্যাতিতাকে সিঙ্গাপুর নিয়ে গিয়ে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মেয়েটির সঙ্গে তাঁর পরিবারের লোকেরাও এখন সিঙ্গাপুরে। তাঁদের সাহায্য করতে ভারতীয় দূতাবাসের একজন অফিসারকে ২৪ ঘণ্টার জন্য নিযুক্ত করেছে বিদেশমন্ত্রক।