দিল্লি ধর্ষণ কাণ্ডে দোষ স্বীকার দ্বিতীয় অভিযুক্তের

দিল্লির শিশু কন্যা ধর্ষণ কাণ্ডে দ্বিতীয় অভিযুক্ত প্রদীপ কুমার পুলিসি জেরায় অপরাধ স্বীকার করে নিল। দিল্লি পুলিস কমিশনার নীরজ কুমার গতকাল একটি সাংবাদিক সম্মেলনে এমনটাই জানালেন। প্রদীপ জেরায় জানিয়েছে ``আমি খুব বড় ভুল করে ফেলেছি।`` উনিশ বছরের সম্পূর্ণ নিরক্ষর এই তরুণকে বিহারের লাখিসরাইয়ের বরাহিয়া গ্রাম থেকে দিল্লি ও বিহার পুলিস একটি যৌথ দল গতকাল গ্রেফতার করে।

Updated: Apr 23, 2013, 10:17 AM IST

দিল্লির শিশু কন্যা ধর্ষণ কাণ্ডে দ্বিতীয় অভিযুক্ত প্রদীপ কুমার পুলিসি জেরায় অপরাধ স্বীকার করে নিল। দিল্লি পুলিস কমিশনার নীরজ কুমার গতকাল একটি সাংবাদিক সম্মেলনে এমনটাই জানালেন। প্রদীপ জেরায় জানিয়েছে ``আমি খুব বড় ভুল করে ফেলেছি।`` উনিশ বছরের সম্পূর্ণ নিরক্ষর এই তরুণকে বিহারের লাখিসরাইয়ের বরাহিয়া গ্রাম থেকে দিল্লি ও বিহার পুলিস একটি যৌথ দল গতকাল গ্রেফতার করে।
লখিসরাইয়ের মূখ্য জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এই দুষ্কৃতীকে ১৫দিনের ট্রানসিট রিমান্ডে পাঠিয়েছেন। প্রদীপকে দিল্লিতে নিয়ে আসা হচ্ছে।
পাঁচ বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণের ঘটনায় মূল অভিযুক্ত মনোজ কুমার পুলিসি জেরায় এই ঘটনায় প্রদীপ কুমারের জড়িত থাকার কথা দাবি করে।
সূত্রে খবর, মনোজ ও প্রদীপের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের মামলা দায়ের করতে চলেছে পুলিস।
পুলিস সূত্রে খবর, পুলিসি জেরায় মনোজ জানিয়েছে গত ১৫তারিখ প্রদীপ তার বাড়িতে আসে। সম্পূর্ণ মদ্যপ অবস্থায় মনোজ চকোলেটের লোভ দেখিয়ে প্রতিবেশী ছোট্ট মেয়েটিকে তার বাড়িতে নিয়ে আসে।
মনোজ অবশ্য দাবি করেছে মেয়েটিকে যৌননির্যাতনের ঘটনায় সে জড়িত ছিল না। শিশুটিকে প্রদীপই ধর্ষণ করেছে বলেও দাবি করেছে মনোজ।
জেরায় উঠে এসেছে শিশুটির উপর পৈশাচিক অত্যাচার চালানোর পর সে অচৈতন্য হয়ে পড়লে মেয়েটি মৃত ভেবে তারা সেখান থেকে পালিয়ে যায়।