দেবযানী ইস্যুতে চাপে পড়েই ব্যাকফুটে গেল আমেরিকা

Last Updated: Monday, December 23, 2013 - 21:40

ভারতের চাপে কিছুটা হলেও কাজ হল। ভিসা কারচুপি মামলায় ব্যক্তিগতভাবে হাজিরা দিতে হবে না দেবযানী খোবরাগাড়েকে। একই সঙ্গে রাষ্ট্রসঙ্ঘে ভারতের স্থায়ী মিশনেও জায়গা হয়ে গেল দেবযানীর। দেবযানীর সমর্থনে ঘরের মাটিতেও চাপ বাড়ছে আমেরিকার ওপর।

ভারতীয় কূটনীতিকের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে ইন্দো-আমেরিকান একটি গ্রুপ। ভারতে নিযুক্ত মার্কিন কূটনীতিকদের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দেওয়ার জন্য আরও কিছুটা সময় চেয়েছে ওয়াশিংটন।

এদিকে সঙ্গীতা রিচার্ডকে যেভাবে কাঠগড়ায় তোলা হচ্ছে তাতে তিনি খুবই হতাশ বলে জানালেন। দেবযানী খোবড়াগাড়ে গ্রেফতারের নয়দিনের মাথায় মুখ খুলে এমনটাই জানালেন সঙ্গীতা রিচার্ডের আইনজীবী ডানা সাসম্যান। তাঁর মক্কেলের সঙ্গে যে অন্যায় হয়েছে সেটাই চাপা পড়ে গেছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। আইনজীবী জানিয়েছেন, সঙ্গীতা রিচার্ড বিচার চেয়েছিলেন। বদলে তিনিই ষড়যন্ত্রকারী হিসেবে চিহ্নিত হয়েছেন। সঙ্গীতার নিরাপত্তার স্বার্থেই মক্কেলের বর্তমান ঠিকানা গোপন রেখেছেন আইনজীবী।

ঘুম চোখ খুলেই শুরু হত কাজ। চলত গভীর রাত পর্যন্ত। সপ্তাহে সাতদিন হাড়াভাঙা খাটুনির পরও ন্যায্য মাইনে পেতেন না দেবযানী খোবরাগাড়ের পরিচারিকা সঙ্গীতা রিচার্ড। তাঁর মালকিনের এই চাপ আর সহ্য করতে পারছিলেন না। দেবযানী খোবড়াগাড়ে গ্রেফতার কাণ্ডে মুখ খুলে এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য জানালেন সঙ্গীতা রিচার্ডের আইনজীবী ডানা সাসম্যান। তাঁর মক্কেল কেবল এই অন্যায়ের বিচার চেয়েছিলেন। কিন্তু গোটা ঘটনাকে মিডিয়া যেভাবে বর্ণনা করছে তাতে খুবই হতাশ তাঁর মক্কেল সঙ্গীতা রিচার্ড। তাঁর মক্কেলের সঙ্গে যে অন্যায় হয়েছে সেটাই পিছনে চলে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন সঙ্গীতার আইনজীবী ডানা সাসম্যান।

দেবযানীর গ্রেফতার নিয়েও মুখ খুলেছেন সঙ্গীতার আইনজীবী। ডেপুটি কনসাল জেনারেল হিসেবে তাঁর কূটনৈতিক রক্ষাকবচ থাকলেও তা সীমিত রক্ষাকবচ। সেই রক্ষাকবচ ব্যক্তিগত ক্ষেত্রে কার্যকরী নয় বলেও মন্তব্য করেছেন ডানা সাসম্যান। ঘটনার নয়দিনের মাথায় মুখ খুললেন সঙ্গীতার আইনজীবী। তবে মক্কেলের নিরাপত্তার স্বার্থে তিনি কোথায় রয়েছেন তা বলেলনি ডানা সাসম্যান। স্ত্রীকে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ায় জন্য সঙ্গীতার স্বামী ফিলিপকে একদিন মাঝরাস্তায় বন্দুক উঁচিয়ে ভয় দেখায় এক ব্যক্তি। সঙ্গীতা রিচার্ডকে ভারতে নিয়ে যাওয়ার জন্য দেবযানীর বাবা উত্তম খোবরাগাড়ে বেশ কয়েকবার ফিলিপকে ফোন করেছিলেন বলে জানিয়েছেন ফিলিপের এক বন্ধু।



First Published: Monday, December 23, 2013 - 21:40


comments powered by Disqus