সংশোধনী আনতে ব্যর্থ হওয়ায় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ ডিএমকের

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রস্তাবে সংশোধনী আনতে ব্যর্থ হওয়ায় কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছে ডিএমকে। তাদের অভিযোগ, ভারত যে প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছে তা লঘু ও দুর্বল। ভারতের কড়া অবস্থানের দাবিতে বিক্ষোভের আঁচ ছড়িয়েছে তামিলনাড়ুর বিভিন্ন এলাকায়। শ্রীলঙ্কা বিরোধী তামিল ক্ষোভের আঁচ দিল্লির দরবারে পৌঁছেছিল আগেই। বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রসঙ্ঘে যখন শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রস্তাব পেশ হচ্ছে তখন সেই ক্ষোভেরই বহিঃপ্রকাশ দেখা গিয়েছে চেন্নাইয়ের রাজপথে।

Updated: Mar 22, 2013, 09:12 AM IST

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রস্তাবে সংশোধনী আনতে ব্যর্থ হওয়ায় কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছে ডিএমকে। তাদের অভিযোগ, ভারত যে প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছে তা লঘু ও দুর্বল। ভারতের কড়া অবস্থানের দাবিতে বিক্ষোভের আঁচ ছড়িয়েছে তামিলনাড়ুর বিভিন্ন এলাকায়। শ্রীলঙ্কা বিরোধী তামিল ক্ষোভের আঁচ দিল্লির দরবারে পৌঁছেছিল আগেই। বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রসঙ্ঘে যখন শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে প্রস্তাব পেশ হচ্ছে তখন সেই ক্ষোভেরই বহিঃপ্রকাশ দেখা গিয়েছে চেন্নাইয়ের রাজপথে।
কলম্বোর বিরুদ্ধে কড়া অবস্থানের দাবিতে বিক্ষোভে সামিল হন তামিলনাড়ুর মানুষ। এই ইস্যুতে আগেই কেন্দ্র ছেড়ে বেরিয়ে এসেছে ডিএমকে। তাদের দাবি ছিল, শ্রীলঙ্কা সরকার ও সেনাবাহিনীর মদতে গণহত্যা, যুদ্ধাপরাধের মতো ঘটনার উল্লেখ থাকতে হবে প্রস্তাবে। আন্তর্জাতিক সংস্থাকে দিয়ে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নিরপেক্ষ তদন্ত ও দোষীদের চিহ্নিত করার সংস্থান যাতে প্রস্তাবটিতে থাকে, সে জন্যও দাবি জানায় ডিএমকে।
রাষ্ট্রসঙ্ঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে ভারত সংশোধনী আনতে ব্যর্থ হওয়ায় প্রত্যাশিত ভাবেই কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে ফের তোপ দেগেছে করুণানিধির দল।
ডিএমকের এই অভিযোগ অবশ্য মানতে নারাজ কেন্দ্রীয় সরকার। তাদের দাবি, মানবাধিকার লঙ্ঘনের ক্ষেত্রে বরাবরের মতো কঠোর ভূমিকা নিতেই মার্কিন প্রস্তাবের ওপর সংশোধনী আনতে চেয়েছিল ভারত।
সরকার সাফাই দিলেও ডিএমকের কেন্দ্র বিরোধী প্রচার থামেনি। তাদের অভিযোগ, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে আনা একটি দুর্বল ও লঘু প্রস্তাবকে ভারত রাষ্ট্রসঙ্ঘে সমর্থন করায় গোটা বিশ্বের তামিল জনজাতি হতাশ। সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে ডিএমকে প্রধান বলেন, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে মার্কিন প্রস্তাবে ভারতের ভূমিকায় তাঁরা সন্তুষ্ট নন। তাঁদের দাবিগুলি বিবেচিত হয়নি।